সোমবার, ৮ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

২০২৫ সালে চাকরি হারাবে ৫০% মানুষ



robotতথ্য-প্রযুক্তি ডেস্ক: ২০২৫-এ চাকরি থাকবে তো? প্রশ্নটা বর্তমানে খুবই প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে। যে হারে রোবট এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ব্যবহার বাড়ছে, তাতে আগামী ১১ বছরের মধ্যে বিশ্বে মোট চাকরিজীবীদের প্রায় ৫০ শতাংশেরই চাকরি থাকবে না। অন্তত সমীক্ষা তাই বলছে।

প্রবীণদের খেয়াল রাখাই হোক বা গাড়ি, অনেক ক্ষেত্রেই এখন রোবট এবং প্রযুক্তির ব্যবহার দিনে দিনে বাড়ছে। সেই প্রবণতা আরো বাড়ছে চাকরির ক্ষেত্রে এবং কল-কারখানায়। এক কথায় মিডল লেভেল ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত সব পদের কাজই যন্ত্র বা যান্ত্রিক মানবরাই করে দেবে।

চিনের একটি কনসাল্টিং ফার্ম সিবিআরই জানাচ্ছে, বিশেষজ্ঞদের মত, ‘২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বের প্রায় ৫০ শতাংশ চাকরিজীবী মানুষ কাজ হারাবে। তবে সৃজনশীল ও রিয়েল এস্টেট ক্ষেত্রে কাজের সংখ্যা বাড়বে।’ আগামী দেড় দশকের মধ্যে এই বিরাট পরিবর্তন হবে বলে অনুমান করছেন তাঁরা।

ফাস্ট ফরওয়ার্ড ২০৩০ : দ্য ফিউচার অব ওয়ার্ক অ্যান্ড দ্য ওয়ার্কপ্লেস নামে একটি সমীক্ষায় ব্যাপারটি আরো পরিষ্কার হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন সংস্থার ২০০ জন শিল্পপতি ও ক্রিয়েটিভ হেডদের নিয়ে করা এই সমীক্ষায় বলা হয়েছে, প্রযুক্তির ব্যবহারে চাকরির বহু পদ হয়ত অবলুপ্ত হবে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে সকলেই কাজ হারাবেন। তবে তাঁদের কাজের পদ্ধতি ও ক্ষেত্র অবশ্যই পাল্টে যাবে। সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে আউট সোর্সিং সংস্থা ও ছোট-ছোট সংস্থাগুলো।

প্রশ্নটা বর্তমানে খুবই প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে। যে হারে রোবট এবং আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ব্যবহার বাড়ছে, তাতে আগামী ১১ বছরের মধ্যে বিশ্বে মোট চাকরিজীবীদের প্রায় ৫০ শতাংশেরই চাকরি থাকবে না। অন্তত সমীক্ষা তাই বলছে।

প্রবীণদের খেয়াল রাখাই হোক বা গাড়ি, অনেক ক্ষেত্রেই এখন রোবট এবং প্রযুক্তির ব্যবহার দিনে দিনে বাড়ছে। সেই প্রবণতা আরো বাড়ছে চাকরির ক্ষেত্রে এবং কল-কারখানায়। এক কথায় মিডল লেভেল ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত সব পদের কাজই যন্ত্র বা যান্ত্রিক মানবরাই করে দেবে।

চিনের একটি কনসাল্টিং ফার্ম সিবিআরই জানাচ্ছে, বিশেষজ্ঞদের মত, ‘২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বের প্রায় ৫০ শতাংশ চাকরিজীবী মানুষ কাজ হারাবে। তবে সৃজনশীল ও রিয়েল এস্টেট ক্ষেত্রে কাজের সংখ্যা বাড়বে।’ আগামী দেড় দশকের মধ্যে এই বিরাট পরিবর্তন হবে বলে অনুমান করছেন তাঁরা।

ফাস্ট ফরওয়ার্ড ২০৩০ : দ্য ফিউচার অব ওয়ার্ক অ্যান্ড দ্য ওয়ার্কপ্লেস নামে একটি সমীক্ষায় ব্যাপারটি আরো পরিষ্কার হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন সংস্থার ২০০ জন শিল্পপতি ও ক্রিয়েটিভ হেডদের নিয়ে করা এই সমীক্ষায় বলা হয়েছে, প্রযুক্তির ব্যবহারে চাকরির বহু পদ হয়ত অবলুপ্ত হবে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে সকলেই কাজ হারাবেন। তবে তাঁদের কাজের পদ্ধতি ও ক্ষেত্র অবশ্যই পাল্টে যাবে। সব থেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে আউট সোর্সিং সংস্থা ও ছোট-ছোট সংস্থাগুলো।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: