মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «  

সালাহ উদ্দিনকে তৃতীয় কোন দেশে নিয়ে যেতে চান স্ত্রী



salahuddin_4নিউজ ডেস্ক :: দীর্ঘদিন নিখোঁজ থাকার পর ভারতের শিলং-এ সন্ধান পাওয়া বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমদের স্ত্রী ভারতের শিলংয়ে গিয়ে বলেছেন, আইনী প্রক্রিয়ায় তিনি তার স্বামীকে তৃতীয় কোনো দেশে নিয়ে যেতে চান।

হাসিনা আহমেদ গতকাল মেঘালয় রাজ্যের ঐ শহরে গিয়ে পৌছার পর শিলং সিভিল হাসপাতালে তার স্বামীর সাথে দেখা করেছেন।

স্থানীয় সময় রাত পৌনে আটটার দিকে এই সাক্ষাতের সময় হাসিনা আহমদের সাথে বিএনপির কয়েকজন নেতাও ছিলেন। তারা প্রায় ৪০ মিনিট কথা বলেছেন।

হাসিনা আহমদ পরে তার স্বামীর দেখাশুনো এবং চিকিৎসার জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তাকে তৃতীয় কোন দেশে নিয়ে যাওয়া যায় কিনা সে চেষ্টাই করবেন তিনি। শিলং পৌছানোর পর হাসিনা আহমদ সেখানকার আইনজীবীদের সাথেও কথা বলেছেন।

এর আগে গত ১১ই মে – ঢাকা থেকে তার অর্ন্তধানের মাস দুয়েক পর – রহস্যজনকভাবে শিলংয়ে গিয়ে হাজির হন মি আহমেদ।

হাসপাতালে আজ তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তিনি স্বেচ্ছায় ভারতে ঢোকেননি, বরঞ্চ তার চোখ-হাত বেঁধে তাকে শিলংয়ে ফেলে দিয়ে যাওয়া হয়েছিল। শিলংয়ের এক হাসপাতালে পুলিশের হেফাজতে থাকা অবস্থাতেই তিনি সাংবাদিকদের সামনে একথা বলেন।

শিলং সিভিল হাসপাতালে বিচারাধীন বন্দীদের বিভাগে চিকিৎসাধীন আছেন সালাহউদ্দিন আহমদ। এই হাসপাতালে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. গোস্বামীর তত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলছে।

সালাহউদ্দিন আহমদ সাংবাদিকদের আরো বলেছেন, তিনি দ্রুত দেশে ফিরতে চান।

গতকালই হাসপাতালে তার ডাক্তারি পরীক্ষা হয়েছে। পরীক্ষার পর ডা. ডি জে গোস্বামী বলেছেন,সালাহ উদ্দিন আহমেদ সুস্থ-স্বাভাবিকভাবেই কথা বলছেন। তার স্মৃতিভ্রম হয়েছে এমন কোন প্রমাণ পান নি চিকিৎসকরা।

দুই মাস ‘নিখোঁজ’ থাকার পর ১১ ই মে শিলংয়ে মি. আহমেদের খোঁজ পাওয়া যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: