মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

সালমান-আলিয়াকে ‘চাচা-ভাতিজি’র জুটি বলে বিদ্রুপ!



বিনোদন ডেস্ক:: খ্যাতিমান পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির পরবর্তী ছবি ‘ইনশাল্লাহ’-তে প্রথমবারের মতো জুটি বাঁধতে চলেছেন সুপারস্টার সালমান খান ও আলিয়া ভাট। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর বানসালির ছবিতে সালমানকে পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত ভক্তরা। তবে প্রায় ৩০ বছরের ছোট আলিয়ার সঙ্গে সালমানের ‘রোমান্স’ মানতে পারছেন না নেটিজেনদের অনেকেই।

যদিও এখনো নিশ্চিত খবর বেরোয়নি, প্রধান এ দুই চরিত্রকে রোমান্টিক অ্যাঙ্গেলে দেখানো হবে কি না। সালমান-আলিয়াকে ‘লাভ কাপল’ হিসেবে দেখতে রাজি নন অনেকে।

মাইক্রো-ব্লগিং সাইট টুইটারে অনেকে মন্তব্য করেছেন, আলিয়ার সঙ্গে অনস্ক্রিনে রোমান্স করার মতো বয়স নেই সালমানের। আলিয়ার (২৬) বয়সের তুলনায় সালমানের (৫৩) বয়স প্রায় দ্বিগুণ। আর তাই সিনেমায় দুজনকে লাভবার্ড হিসেবে দেখাটা স্বস্তিকর হবে না।

কোনো কোনো ভক্ত পরামর্শ দিয়েছেন, আলিয়ার চাচা বা বাবার চরিত্রে সালমান অভিনয় করলেই তা ফিট হবে।অনেকে অবশ্য ‘ডিয়ার জিন্দেগি’ সিনেমার উদাহরণ টেনেছেন। ওই ছবিতে আরেক সুপারস্টার শাহরুখ খানের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন আলিয়া ভাট। তাঁদের রসায়ন দর্শক-হৃদয়ে সাড়া ফেলেছিল। ইতিবাচক ভক্তরা বানসালির ওপর আস্থা রাখছেন। তাঁরা বলছেন, বানসালি বিশেষ রসায়ন সৃষ্টি করবেন। সিনেমা সম্পর্কে পুরোপুরি না জেনে আগে থেকে নেতিবাচক হওয়া ঠিক নয়।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে বানসালি ও সালমান একত্র হচ্ছেন। ২০ বছর পর এই পরিচালক-অভিনেতার পুনর্মিলন হতে চলেছে। ১৯৯৯ সালে তাঁরা ‘হাম দিল দে চুকে সনম’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন। ওই ছবিতে সালমান ছাড়াও ছিলেন ঐশ্বরিয়া রাই ও অজয় দেবগন। ‘পদ্মাবত’ ছবির পর বানসালির পরবর্তী প্রকল্প নিয়ে শুরু হয় জল্পনা।

টুইটারে ছবির ঘোষণা দিয়েছেন সালমান খান নিজেও। গতকাল এক টুইট-বার্তায় তিনি লেখেন, “২০ বছর পর অবশেষে সঞ্জয় ও আমি ওঁর পরবর্তী ছবি ‘ইনশাল্লাহ’-তে ফিরলাম। আলিয়ার সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে আছি। ইনশাল্লাহ, এই যাত্রায় আমরা সবাইকে পাশে পাব।”

সালমান খানের সঙ্গে জুটি বাঁধার সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত আলিয়া ভাটও। টুইট-বার্তায় তিনি লেখেন, এই যাত্রায় যুক্ত হতে আর তর সইছে না।সালমান খানের প্রযোজনা সংস্থা এসকেএফ ফিল্মস সঞ্জয় লীলা বানসালির ছবিটি সহ-প্রযোজনা করবে।এর আগে গুঞ্জন ছিল, সঞ্জয় লীলা বানসালির আসন্ন ছবিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে দেখা যেতে পারে। তবে শেষ পর্যন্ত সালমানের নায়িকা হচ্ছেন আলিয়া ভাট।

সালমান ও বানসালি যে একসঙ্গে কাজ করবেন, সে খবর প্রথমে দিয়েছিলেন প্রযোজনা সংস্থা বানসালি প্রডাকশনসের প্রধান নির্বাহী প্রেরণা সিং। কিছুদিন আগে তিনি বলেছিলেন, ‘হ্যাঁ, একটি প্রেমের গল্পে সালমান খান ও সঞ্জয় লীলা বানসালির পুনর্মিলন হচ্ছে। ছবির কাহিনীর দিকে তাকালে তাঁদের যৌথতাই হবে সেরা।’

১৯৯৬ সালে ‘খামোশি : দ্য মিউজিক্যাল’ দিয়ে পরিচালক হিসেবে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন বানসালি। বানসালির ‘সাওয়ারিয়া’ ছবিতে বিশেষ দৃশ্যে দেখা গিয়েছিল সালমান খানকে, এ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় রণবীর কাপুর ও সোনম কাপুরের।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: