শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «  

সন্তানকে বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপ মায়ের, দু’জনই নিখোঁজ



নিউজ ডেস্ক:: চলন্ত লঞ্চ থেকে শিশু সন্তান নদীতে পড়ার পরেই তাকে বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপ দেন মা। এরপর দু’জনই নিখোঁজ। সোমবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে চাঁদপুরের মতলব উত্তরের মেঘনার ষাটনল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।তবে এখন পর্যন্ত তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার।

জানা গেছে, ৯৯৯ এই নাম্বারে জনৈক আক্তার হোসেন কল দিয়ে জানান, ষাটনল এলাকায় চলন্ত এমভি ইমাম হাসান-২ লঞ্চ থেকে একটি শিশু পড়ে যায়। তৎক্ষণাৎ শিশুর মা শিশুকে রক্ষা করতে নদীতে ঝাঁপ দেন। লঞ্চটি চলতে থাকায় পরিস্থিতি বেগতিক দেখে যাত্রী আক্তার হোসেন ৯৯৯ নাম্বারে সাহায্যের জন্য কল করেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে চাঁদপুর থেকে ডুবুরি নিয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল মতলব উত্তরের ষাটনলে ছুটে যায়। এসময় সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তারও যোগ দেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় অনুসন্ধান চালিয়েও দুজনের কারো সন্ধান মেলেনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: