মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১ ভাদ্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

ভরিতে সোনার দাম ১২ হাজার টাকা কমতে পারে



21. goldলাইফস্টাইল ডেস্ক::
আগামী বছর আন্তর্জাতিক মুদ্রাবাজারে মার্কিন ডলার শক্তিশালী হতে পারে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর সে কারণে স্বর্ণের দাম আরো পড়ে যেতে পারে। তেমনটি হলে বাংলাদেশেও সোনার দাম ব্যাপকভাবে কমতে পারে। মার্কিন সংস্থা কিটকো গোল্ড সার্ভের এক জরিপে স্বর্ণের দাম কমার এই পূর্বাভাস দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর প্রতি ভরি ভালো মানের স্বর্ণের দাম প্রায় দেড় হাজার টাকা কমিয়ে ৪৫ হাজার ৭২৩ টাকা নির্ধারণ করা হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ২০১৫ সালে আউন্স প্রতি (১ আউন্স= ২.৪৩০৫ ভরি) স্বর্ণের দাম ১ হাজার ডলারে নেমে আসতে পারে। এই হিসাবে ভরি প্রতি স্বর্ণের দাম পড়তে পারে মাত্র ৩২ হাজার ৭৫ টাকা (ডলার ও টাকার বর্তমান বিনিময় হারে) যা বর্তমান দামের চেয়ে প্রায় ১২ হাজার টাকা কম। বর্তমানে দেশের বাজারে প্রতি ভরি ভালো মানের স্বর্ণ বিক্রি হচ্ছে ৪৪ হাজার টাকা দরে।

আন্তর্জাতিক বাজারে ২০১৫ সালে স্বর্ণের দাম কমে ১ হাজার ডলারে দাঁড়াতে পারে। গত প্রায় ২০০ দিন প্রতি আউন্স স্বর্ণের গড় দাম ১ হাজার ২৬৮ ডলার থাকায় আগামী বছরে তার দাম হাজার ডলারে নেমে আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

মার্কিন গ্লোবাল ইনভেস্টরের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফ্রাঙ্ক হোমস কিটকোকে বলেন, স্বর্ণের দামের ব্যাপারে এর আগে ২০১৩ সালে অর্থনীতিবিদ নওরিল রুবিনি এক পূর্বাভাস দেন। যেখানে ২০১৫ সাল শেষ হওয়ার আগেই আউন্স প্রতি দাম হাজার ডলারে নেমে আসবে বলে জানানো হয়। তার ধারণাও অনেকাংশে সঠিক। হোমস বলেন, ২০১৫ সালে ডলার শক্তিশালী হতে পারে। আর তার প্রভাব পড়বে স্বর্ণসহ অন্যান্য পণ্যের ওপর।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ফেব্রুয়ারিতে ডেলিভারির জন্য গত ১৯ ডিসেম্বর শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি আউন্স স্বর্ণের দাম ওঠে ১ হাজার ১৯৬ ডলার। ওই সপ্তাহে স্বর্ণের দাম আউন্সে ২৬ ডলার পর্যন্ত কমে। তবে বড় দিনসহ বছর শেষের ছুটির কারণে ডিসেম্বরের শেষ দুই সপ্তাহে দামে তেমন কোনো হেরফের হবে না।

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম কমলে বা বাড়লে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা দেশের বাজারে তা সমন্বয় করেন।

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমায় সর্বশেষ গত ৬ নভেম্বর দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম ভরি প্রতি ৪৪ হাজার ৫২১ টাকা নির্ধারণ হয়। এ সময় স্বর্ণের পাশাপাশি রুপার দামও কমানো হয়। প্রতি ভরি ২১ ক্যারেট (ক্যাডমিয়াম) রুপার দাম ১ হাজার ১০৮ টাকা থেকে কমিয়ে ১ হাজার ৪৯ টাকা করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: