মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

ফলেই দূর হোক পানির অভাব



summer-fruitলাইফস্টাইল ডেস্ক :: আমাদের গোটা শরীরকে যদি একটা প্লাস্টিক কন্টেইনার হিসেবে কল্পনা করা হয় তাহলে দেখা যাবে এর বুক পর্যন্ত কেবল পানিই রাখা আছে। অর্থাৎ রক্ত, মাংসপেশী সবকিছু মিলিয়ে মানব শরীরের ৬০ শতাংশই পানি। প্রতিদিন প্রস্রাব, ঘাম ও অন্যান্য শারীরিক ক্রিয়ার মাধ্যমে শরীর থেকে প্রচুর পানি বেরিয়ে যায়। এই পানির সঙ্গে শরীর থেকে বের হয়ে যায় প্রয়োজনীয় খনিজ লবণ। এই পানির অভাব পূরণ হয় পর্যাপ্ত পানি পান করলে। পানি পান করা ছাড়া দৈনিক ২০ শতাংশ পানির চাহিদা পূরণ হয় বিভিন্ন খাবার থেকে। আর প্রয়োজনীয় লবণের ঘাটতি পূরণ হয় বাড়তি এসব খাবার থেকে।

গ্রীষ্মকালে ঘাম বেশি হয় বলে পানির চাহিদাও বাড়ে। আর এসময়ই এমন কিছু ফল পাওয়া যায়, যেগুলোতে আছে প্রচুর পরিমাণে পানি। বিশেষজ্ঞদের মতে, কায়িক পরিশ্রম বা ব্যায়ামের পর এক গ্লাস পানি খেয়ে যে পরিমাণ পানি শূন্যতা দূর করা সম্ভব তার চেয়েও বেশি উপকার পাওয়া যাবে তরমুজ বা শশা জাতীয় ফলমূল খেয়ে।

তরমুজ ও স্ট্রবেরিতে ৯০ শতাংশের বেশি পানি রয়েছে। কমলা, মালটা ও আনারসে রয়েছে ৮৭ শতাংশ পানি। জামে ৮৫ শতাংশ, আপেল ও পেয়ারায় ৮৪ শতাংশ এবং আঙুরের ৯১ শতাংশই পানি। সবজির মধ্যে শশা ও লেটুসে পানির পরিমাণ ৯৬ শতাংশ, টমেটোতে ৯৫ শতাংশ। গাজর, মটরশুঁটিতেও পানির পরিমাণ যথেষ্ট।

অনেকটা প্রাকৃতিক স্যালাইনের মতো। গরমের দিনে প্রচুর পানি পান করার পাশাপাশি এসব ফল ও সবজি খেলে শরীর সহজে ক্লান্ত হবে না ও পানি শূন্যতা রোধ করা যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: