শনিবার, ১০ এপ্রিল ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

পালিয়ে বিয়ে করাকে কেন্দ্র করে ছাতকে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ: নিহত ২, ১১ জনের নামে মামলা




ছাতক প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার জাউয়া ইউনিয়নে পালিয়ে বিয়ে করাকে কেন্দ্র করে দুইগ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গত ১৭ নভেম্বর স্থানীয় বিনন্দপুর এবং বড়কাপন গ্রামের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে অর্ধ শতাধিক লোক আহত হলেও এখন পর্যন্ত নিহত ২ জন৷
জানা যায়, জাউয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুরাদ আহমেদ এর ভাইয়ের মেয়ে তাহমিনা বেগম এবং পাশ্ববর্তী গ্রাম বিনন্দপুরের বিএনপি নেতা আব্দুল বারির পুত্র সাদ্দাম রুবেলের মধ্যে দীর্ঘদিন থেকে প্রণয়ের সম্পর্ক ছিল। উভয় পরিবার একে অপরের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ হওয়ায় তারা গত ১০ নভেম্বর পালিয়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু তাহমিনার চাচা মুরাদের লোকজন তাদের ধরে ফেলে। রুবলকে মারধর করলে তাকে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় দুইগ্রামবাসীর মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ সংগঠিত হয়। উভয়পক্ষের আহতরা বর্তমানে ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
উক্ত ঘটনায় জাউয়া ইউপি চেয়ারম্যান মুরাদ আহমেদের ভাই ও তাহমিনার বাবা বাদি হয়ে ১১জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন৷ মামলার আসামীরা হলেন, বিনন্দপুর গ্রামের আব্দুল বারির পুত্র রুবেল সাদ্দাম(২৯), আব্দুল বারি(৬৫) পিতা, আলী হোসেন, রাজন আলী(৩৯) পিতা রহমত আলী, রইস উদদিন(৪১) পিতা, তাহের আলী, বদরুল(২৫) পিতা আশোখ আলী, আবুল(৩২) পিতা জোয়াদ আলী, জিয়াউর(২৫) পিতা আশিক মিয়া, ইমন(২২) পিতা ইদ্রিস আলী, আলী আসকর(২৩) পিতা, রমজান আলী, ছাড়াও অজ্ঞাত আরো ২ জন।

ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ আবু তাহের বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে ঘটনা নিয়ন্ত্রনে নিতে সক্ষম হয়। মামলার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, উভয়পক্ষ হতাহত হয়েছেন যদিও একপক্ষ ইতিমধ্যে মামলা করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

Developed by: