রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

নোবেল পুরস্কার গ্রহণ করলেন মালালা ও কৈলাস



Malala-satyarthi

নিউজ ডেস্ক:: নোবেল পুরস্কার গ্রহণ করেছেন পাকিস্তানের নারীশিক্ষা আন্দোলনের কর্মী মালালা ইউসুফজাই ও ভারতের শিশু অধিকারকর্মী কৈলাস সত্যার্থী। আজ বুধবার ১০ ডিসেম্বর নরওয়ের রাজধানী অসলোতে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

পুরস্কার গ্রহণের আগে বিবিসির সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে মালালা বলে, সে রাজনীতিকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করতে চায়। এমনকি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চায় সবচেয়ে কম বয়সে নোবেল পুরস্কার পাওয়া এই নারীশিক্ষা আন্দোলনের কর্মী। এর মাধ্যমে দেশের সেবা করতে চায় মালালা।

অন্যদিকে নোবেল শান্তি পুরস্কারকে ‘একটা বড় সুযোগ’ হিসেবে মন্তব্য করেছেন কৈলাস সত্যার্থী।

এ বছর যৌথভাবে শান্তিতে নোবেল পান চির বৈরী দুই দেশ পাকিস্তানের মালালা ও ভারতের কৈলাস। আজ নরওয়েজিয়ান নোবেল কমিটির চেয়ারম্যানের কাছ থেকে তাঁরা পুরস্কার গ্রহণ করেন। এ সময় নরওয়ের রাজা পঞ্চম হ্যারাল্ড উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে নোবেল কমিটির চেয়ারম্যান থোরবিয়ন জাগলান্ড তাঁদের ‘শান্তিতে চ্যাম্পিয়ন’ হিসেবে মন্তব্য করেছেন। তিনি শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ‘গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার রাস্তা জ্ঞান দিয়ে বাঁধানো।’

২০১২ সালে তালেবান জঙ্গিদের গুলিতে গুরুতর আহত হয় মালালা। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে যুক্তরাজ্যে পাঠানো হয়। সুস্থ হয়ে এখন সেখানেই পড়াশোনা করছে মালালা। নারীশিক্ষা আন্দোলনের প্রতীক হয়ে ওঠা এই কিশোরীর ঝুলিতে ইতিমধ্যে জমা হয়েছে সম্মানজনক অনেক পুরস্কার।

আর ৬০ বছর বয়সী কৈলাস মহাত্মা গান্ধীর অনুসারী। শিশু অধিকার আদায়ে তিনি বিভিন্ন ধরনের আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন শান্তিপূর্ণভাবে। ‘বাচপান বাঁচাও আন্দোলন’ (শিশু অধিকার রক্ষার আন্দোলন) নামের একটি সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা তিনি। শিশুশ্রম নিরসন, শিশু অধিকার আদায় এবং মানবপাচার অবসানের লক্ষ্যে কাজ করে এই সংস্থাটি। কারখানা ও খনিতে ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশে কর্মরত প্রায় ৮০ হাজার শিশুকে উদ্ধার করে পুনর্বাসন ও শিক্ষার ব্যবস্থা করে সংস্থাটি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: