শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «  

নানা দেশের ঐতিহ্যবাহী নাস্তা



opuroni_1347216677_1-breakfast2লাইফ স্টাইল ডেস্ক :: জাতীয় নাস্তা সপ্তাহ পালন হলে কেমন হতো বলুন তো? মজার সব খাবার খেয়ে সপ্তাহ পার! খাবার দাবারে যাদের অনীহা তাদের কথা ছেড়ে দিলাম, কিন্তু রসনা বিলাসী কেউ এমন কথা শুনলে লাফিয়ে ওঠবেন সহজেই। তারপরও, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেরা খাবারটি দিয়ে নাস্তা সপ্তাহ সাজালে আর কথাই থাকে না। সুন্দরভাবে আপনার খাদ্য সপ্তাহ সাজাতে জেনে নেয়া যাক বিশ্বের নানা দেশের ঐতিহ্যবাহী নাস্তা সম্বন্ধে।

* জাপানিদের সকালের সবচেয়ে উত্তম নাস্তার মধ্যে বিশেষ ধরনের স্যুপ আর সাদা ভাতের প্রচলন বেশি। সঙ্গে থাকতে পারে সয়াবড়ি, সামুদ্রিক শৈবাল জাতীয় খাবার এবং একটি ডিম পোজ।

* দক্ষিণ ভারতের হাইদ্রাবাদের ঐতিহ্যবাহী খাবার হিসেবে একটি সুস্বাদু পিঠা প্রচলিত আছে। পিঠাটি মুলত আলু পুরে রোল আকারের। এটা পরিবেশন করা হয় চাটনি এবং সাম্বা (বিশেষ ধরনের সবজি রান্না) দিয়ে।

* ইসরাইলের খাবার স্টাইলে আপনি উদ্বুদ্ধ হবেন সহজেই। তাদের ঐতিহ্যবাহী এ খাবার দেশর সব হোটেল এবং রেস্টুরেন্ট একযোগে প্রচলিত। সাকসোকা নামের একটি খাবার (টমেটো সস দিয়ে বিশেষভাবে ডিম রান্না), আগুনে ঝলসানো মাছ, পনির এবং রান্না তাজা সবজি খেয়ে থাকেন।

* ইতালির একটি দিন কাটে না কফি ছাড়া। তাছাড়া হোটেল রেস্টুরেন্ট বা বারে বসে কেউ সকালের নাস্তাটা সেরে নিতে চাইলে পাস্তা, রুটি, পনির, এবং ফল খেতে হবে।

* যুক্তরাজ্যের সকালের নাস্তায় প্রধানত লবণযুক্ত মাংস, ডিম, সস, মাসরুম, বিন, টমেটো, ব্লাক পুডিং, টোস্ট এবং এককাপ গরম চা থাকতে পারে।

* সেনেগালের মানুষের সকালটা শুরু হয় এককাপ তবার (এক প্রকার কফি) সঙ্গে। কিছু ফল, পেস্ট্রি, পেডিস খেয়ে তারা সকালের নাস্তাটা সমৃদ্ধ করেন।

* ইউরোপীও কিছু দেশে সকালের নাস্তায় ফল, রুটি, পনির এবং মজার এককাপ কফি থাকা চায়-ই।

নাস্তার ভিন্নতা আনতে খেতে পারেন একেকদিন একেক খাবার। এখন আপনিই ঠিক করুন আপনার সকালের নাস্তায় কোন খাবারটি থাক

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: