মঙ্গলবার, ৯ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

নতুন ষড়যন্ত্র গুম অপহরণ



fনিউজ ডেস্ক:: ৭১ এর বুদ্ধিজীবী হত্যার মতো আজকে নতুন ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে গুম খুন অপহরণ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ১৪ ডিসেম্বর বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে জাতিকে মেধা শূন্য করা হয়েছিল। আজকে নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে।
রোববার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি আয়োজিত শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
ফখরুল বলেন, যারা গণতন্ত্রের চেতনাকে লালন করে নতুন একটি ভুখন্ড দাবি করেছিলো, মাথা উচু করে দাড়াতে চেয়েছিলো, সেই জাতিকে ধ্বংস করতেই যারা জাতি বিনির্মাণে ভ’মিকা রাখবে তাদেরকে ১৪ ডিসেম্বর হত্যা করা হয়েছিলো।
ফখরুল অভিযোগ করেন, ৭১ সালে পাকিস্তানিরা তাদের দোসরদের দিয়ে এ কাজ করিয়েছিলো। এসব দোসররা ভিন্নমত পোশনকারীদের ধ্বংস করার জন্য আলাদা বাহীনি তৈরি করেছিলো। যারা আওয়ামী লীগ করে না, যারা ভিন্ন মত পোষণ করে তাদেরকে নির্মূল করে দিতে চেয়েছিলো, এটা ইতিহাস।
তিনি বলেন, শুধু ১৪ ডিসেম্বর বুদ্ধিজীবী হত্যা হয়নি। পুরো মুক্তিযুদ্ধের সময় ধরে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয়। ৯৯১ জনকে হত্যার কথা বলা হয় আসলে এর সংখ্যা আরো বেশি।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ নিজেকে ছাড়া আর কাউকে চেনে না এটাই তাদের চরিত্র । তাই যারাই তাদের বিপক্ষে কথা বলে বা ভিন্ন মত পোষণ করে তাদেরকে পাকিস্তানের দোসর বলা হয়।
তিনি বলেন, আমাদের আন্দোলন, আমরা একটি নির্বাচন চাই , যেই নির্বাচনে সকল দল অংশ গ্রহণ করবে। যেই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন হবে। ৫ জানুয়ারির নির্বাচন প্রমাণ করেছে আওয়ামী লীগের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। জাতির এই চরম লগ্নে দেশের সকল বুদ্ধিজীবীদের চুপ করে বসে না থেকে অধিকার আদায়ের লড়াই এ শরিক হবার আহ্বান জানান তিনি।
আওয়ামী লীগের আমলে যারা গুম হয়েছে মারা গেছে, তাদের রক্ত ও নিখোঁজের মধ্য দিয়ে সপথ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি।
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার , ড. আব্দুল মঈন খান, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. এমাজ উদ্দিন আহমেদ, প্রফেসর ড. খন্দকার মোস্তাহিদুর রহমান,বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শওকত মাহমুদ ।
আলোচনা সভা পরিচালনা করেন বিএনপির প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক জয়নাল আবেদিন ফারুক।
এছাড়া আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ঢাকা মহানগরের বিএনপির সদস্য সচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, সহদফতর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহীন প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: