মঙ্গলবার, ২ মার্চ ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «  

দুর্নীতি মামলায় মনমোহন সিংকে আদালতে তলব



monআন্তর্জাতিক ডেস্ক :: কয়লা ব্লক বরাদ্দে দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংকে তলব করেছেন ভারতের একটি আদালত। আদালত আগামী ৮ এপ্রিল তাকে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

মনমোহন সিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি হিন্দালকো নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে অস্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় ব্লক বরাদ্দ দিয়েছিলেন। এছাড়া হিন্দালকোর চেয়ারম্যান কুমার মঙ্গলাম বিরলা ও সাবেক কয়লা সচিব পিসি পরখসহ ৬ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ মামলায় এর আগেও মনমোহন সিংকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা-সিবিআই।

এর আগে ২০০৬ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত কয়লামন্ত্রী ছিলেন মনমোহন সিং। অভিযোগের তীরটা তখন থেকে মনমোহনের দিকে ছোটে। ওই সময়ে ২৫টি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ১৯৪টি কয়লার ব্লক মনোনয়নের মাধ্যমে দেওয়া হয়।

বেসরকারীকরণের পর থেকে ভারতে কয়লাখনির ব্লক বরাদ্দ করে থাকে কেন্দ্রীয় সরকার। সাধারণত এটা হওয়ার কথা প্রতিযোগিতামূলক টেন্ডার ডেকে। কিন্তু তখন তা আর করা হয়নি।

কয়লার বিতর্কিত ব্লক বরাদ্দ এলাকাগুলো হলো ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ ও ওডিশা। এসব রাজ্য ছিল এনডিএ জোটের শরিক বিজেপি ও বিজেডির হাতে। বিজেপিই এনডিএর মাথা। এ কারণে বলা হচ্ছে বিজেপিও এর দায় এড়াতে পারে না।

প্রতিযোগিতামূলক টেন্ডার আহ্বান না করে মনোনয়নের ভিত্তিতে কয়লার ব্লক বরাদ্দ দেওয়ায় সরকারের এক লাখ ৮৬ হাজার কোটি রুপির আর্থিক ক্ষতি হয়েছে বলে বিরোধীরা দাবি করেছিল।

সূত্র : টাইম অব ইন্ডিয়া

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: