বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক আইএজে কমিটির সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «  

ডাকসু নির্বাচন: কুয়েত মৈত্রী হলের প্রভোস্ট পরিবর্তন



নিউজ ডেস্ক:: কুয়েত মৈত্রী হলের ভারপ্রাপ্ত প্রভোস্ট শবনম জাহানকে সরিয়ে মাহমুদা নাসরিনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এর আগে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনের ভোটগ্রহণের শুরুতেই বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

ভোটগ্রহণের আগেই সিল মারা ব্যালট পাওয়ার অভিযোগে হল প্রভোস্ট শবনম জাহান সরিয়ে মাহমুদা নাসরিনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

আজ সোমবার ভোটগ্রহণ শুরুর আগেই ব্যালটে সিল মারার অভিযোগ তুলে সেখানে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। ফলে ভোটগ্রহণ শুরু হয়নি এই হলে। ভোট বর্জনের পাশাপাশি হল প্রভোস্টসহ প্রক্টরের পদত্যাগ দাবি করছেন শিক্ষার্থীরা। তারা দাবি করছেন, প্রায় ১ হাজার সিল মারা ব্যালট পেপার উদ্ধার করেছেন তারা।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ভোটগ্রহণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেন।আজ সোমবার সকাল ৯টায় বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলের সামনে দেখা যায়, আগে থেকে সিল মারা ব্যালট পেপার নিয়ে শিক্ষার্থীরা হলের গেটের সামনে বিক্ষোভ করছেন। এসব সিল মারা ব্যালট পেপার পৌঁছে গেছে শিক্ষার্থীসহ সাংবাদিকদের কাছেও।

হলের গেট দিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. মো. সামাদ গাড়ি নিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করলেও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাকে আটকে দেন। ড. সামাদ গাড়ি থেকে নেমে শিক্ষার্থীদের বোঝানোর চেষ্টা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: