শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

জানুয়ারিতে দুই পর্বে আয়োজন করা হবে বিশ্ব ইজতেমা



14.ijtemaনিউজ ডেস্ক::
আগামী ৯-১১ এবং ১৬-১৮ জানুয়ারি দুই পর্বে আয়োজন করা হবে বিশ্ব ইজতেমা। ক্রমবর্ধমান মুসল্লিদের কথা চিন্তা করে কয়েক বছর ধরে এক পর্বের বিশ্ব ইজতেমা দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। তারপরও মুসল্লিদের স্থান সংকুলান হচ্ছে না।

এদিকে, শুক্রবার বাদ ফজর বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে জোড় ইজতেমা। মঙ্গলবার জোহর নামাজের পর মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই জোড় ইজতেমা।

প্রতিবছর মূল ইজতেমা শুরুর ৪০দিন আগে হয়ে থাকে এই জোড় ইজতেমা।

এই পাঁচদিনই পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পর চলবে ইসলামের দাওয়াত। কয়েক হাজার মুসল্লি জোড় ইজতেমায় অংশ নিতে মাঠে জড়ো হয়েছেন তুরাগ তীরে।

বিশ্ব ইজতেমা ও জোড় ইজতেমার আয়োজক কমিটির মুরুব্বি প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, তিন চিল্লায় অংশ নেওয়া দেশি-বিদেশি মুসুল্লি ও আলেম ওলামারা এ জোড় ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন। এতে তাবলিগ জামায়াতের শীর্ষ মুরুব্বিরা বয়ান করবেন।

জোড় ইজতেমা শেষে মুসল্লিদের একটি অংশ দাওয়াতি কাজে দেশ-বিদেশের বিভিন্নস্থানে ছড়িয়ে পড়বেন এবং একটি অংশ ইজতেমা ময়দানের প্রস্তুতি কাজের তদারকিতে থাকবেন বলে জানান তিনি।
মুরুব্বি গিয়াস উদ্দিন বলেন, টঙ্গীর ময়দানেই আগামী ৯-১১ এবং ১৬-১৮ জানুয়ারি দুই পর্বে চলবে বিশ্ব ইজতেমা। ক্রমবর্ধমান মুসল্লিদের কথা চিন্তা করে গত কয়েক বছর ধরে এক পর্বের বিশ্ব ইজতেমা দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।

এদিকে এবার তুরাগ তীরে ইজতেমা মাঠের অংশ বিশেষ দখল করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন আয়োজকরা।

তারা বলছেন, এক শ্রেণির দখলদার ইজতেমা ময়দানের পশ্চিম দিকের প্রবেশপথসহ উন্মুক্তস্থল দখল করে নিয়েছে। তুরাগ নদীর পশ্চিম তীরে ইজতেমা ময়দানের ব্যবহারের জমি রাজউক বিভিন্ন জনকে বরাদ্দ দেওয়ায় তারা সেখানে স্থাপনা ও সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে ময়দানের প্রবেশপথ দখল করে ফেলেছে। ময়দানের পূর্ব পাশের বাটা, হোন্ডা ও টেশিস কারখানার অব্যবহৃত জমিতে কর্তৃপক্ষ সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করেছে।

এসব কারণে এবার নদীর পশ্চিমে ভাসমান সেতু নির্মাণ, মুসুল্লিদের গাড়ি পার্কিংসহ প্রবেশ বাধাগ্রস্ত হওয়ার আশংকা প্রকাশ করেছেন তারা।

দেশ ও জাতীর স্বার্থে প্রশাসনের কাছে এসব জমি দখলমুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন আয়োজকরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: