বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক আইএজে কমিটির সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «  

ঘরে ঢুকে মারব,গর্ত থেকে বের করে মারব: মোদি



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা প্রসঙ্গে বলেছেন, ভারতে কোনোরকম নাশকতার চেষ্টা করে পার পাবে না সন্ত্রাসবাদীরা। পাতালে লুকিয়ে থাকলেও তাদের খুঁজে বের করব। দরকার হলে গর্ত থেকে বের করে জঙ্গিদের মারবে ভারত।

গতকাল সোমবার দেশটির গুজরাট রাজ্যের আমেদাবাদের জামনগরে এক জনসভায় এ হুঁশিয়ারি দেন নরেন্দ্র মোদি।মোদি বলেন, ‘আমি দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে পারি না। বেছে বেছে হিসাব নিতে আমি খুব ভালো জানি। এবার ঘরে ঢুকে মারব। ভারতে জঙ্গি হামলার পেছনে যারা আছে, তারা যদি পাতালেও লুকিয়ে থাকে, তাদের খুঁজে বের করব। দরকার হলে গর্ত থেকে বের করে জঙ্গিদের মারবে ভারত।’

সন্ত্রাসবাদের বাড়বাড়ন্তের জন্য ভারতের গত ইউপিএ সরকারকে কাঠগড়ায় তুলে বিজেপি সরকারের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘২৬/১১ (মুম্বাই জঙ্গি হামলা) হামলার পর কেন সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি? ২০০৮ সালে আমেদাবাদে ধারাবাহিক বিস্ফোরণের পরেও কেন জঙ্গিরা ছাড় পেল?’

জাতীয় কংগ্রেসসহ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে জঙ্গি দমনে ব্যর্থ উল্লেখ করে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘গত ৪০ বছর ভারতের বুকে জঙ্গিরা মানুষকে গুলিবিদ্ধ করে চলেছে। কিন্তু যারা শুধু ভোটের রাজনীতি নিয়ে অন্ধ হয়ে আছে, তারা সেদিকে ফিরে পর্যন্ত দেখেনি। আমি ক্ষমতা বা আসনের পরোয়া করি না। আমি চাই, ভারতের মানুষের সুরক্ষা।’

চলমান পাক-ভারত উত্তেজনায় বিরোধীদলীয় নেতাদের ভূমিকা ও বক্তব্যের সমালোচনা করে মোদি বলেন, ‘ভারতের বিরোধী নেতারা যেসব বয়ান দেন, তা পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যমের হেডলাইনে পরিণত হয়। দেশের মঙ্গলের দিক থেকে এটা কি সঠিক? দুর্নীতি হোক বা সন্ত্রাসবাদ, যে ক্ষেত্রের লড়াই-ই হোক না কেন, আমাদের নীতি ও নিয়ম দুই দেশই দেখতে পায়।’

ভারতের হাতে ফ্রান্সের রাফাল যুদ্ধবিমান থাকলে পাকিস্তানের ভূখণ্ডে ভারতীয় বিমান হামলা পুরোপুরি সফল হতো উল্লেখ করে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘আমাদের হাতে রাফাল থাকলে ভারতের কোনো বিমানকে ওরা নামাতে পারত না। আর ওদের কোনো বিমানও ভারত থেকে ফিরতে পারত না।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: