শনিবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

গ্রেফতার পাকিস্তানি নাগরিক আইএসআই এর চর



1. atok pakনিউজ ডেস্ক::
গাজীপুরে গ্রেফতার হওয়া পাকিস্তানি নাগরিক খালিদ মেহমুদ (৫০) নিজেকে পাকিস্তানের সেনা গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের চর বলে পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। এছাড়া তিনি পাকিস্তানের ফয়সালাবাদ মিল্লাত টাউনের ২৬০/বি-এর বাসিন্দা মো. আরশেদ এর ছেলে। তার পাকিস্তানি নাগরিকত্ব আইডি নং-৬১১০১-১৭৬৭৭২৪-৩, পাসপোর্ট নং-ইএফ ০১৫৭২৪২।

গ্রেফতারের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় পুলিশের কাছে এ স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। সোমবার দুপুরে তাকে নিয়ে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংকালে গাজীপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) হারুন অর রশিদ এসব তথ্য জানান।

শ্রীপুর উপজেলার ভাংনাহাটি এলাকার একটি কারখানা থেকে রবিবার সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে গাজীপুর পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) পরিদর্শক মোমিনুল ইসলাম জানিয়েছেন।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, আটক ব্যক্তি পাকিস্তানের আইএসআইয়ের সদস্য বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েই আটক করা হয়েছে। তবে সে কী কারণে আত্মগোপন করে ছিল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, ২০১৪ সালের ৭ নভেম্বর থেকে তিন মাসের ই-টাইপ ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে আসেন খালিদ । এরপর ১৯ নভেম্বর তিনি শ্রীপুরের ইউনিলায়েন্স টেক্সটাইল কারখানায় ইলেক্ট্রিক ইঞ্জিনিয়ার পদে চাকরি নেন। পরে তার ভিসার মেয়াদ এ বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি মে পর্যন্ত দ্বিতীয় দফায় বাড়ানো হয়। কিন্তু ৬ মে তার ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও তিনি অবৈধভাবে দেশে অবস্থান করছিলেন। গাজীপুরে তার অবস্থানের খবর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পুলিশ হেড কোয়ার্টার ও গোয়েন্দা সংস্থায়ও ছিল। কিন্তু তিনি অবস্থান করছিলেন আগে তা জানা যায়নি। আমরা তাকে অনেকদিন ধরেই খুঁজছিলাম। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে ওই কারখানা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আমির হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, তিনি আগে পাকিস্তান বিমানবাহিনীতে কর্মরত থেকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বেইজ স্থাপনা ও রাডার টেকনোলজিতে উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন। ২০০১ সালে অবসরে যান তিনি। পরবর্তীতে আইএসআই-এর সঙ্গে সম্পৃক্ত হন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ থেকে নিষিদ্ধ হওয়া পাকিস্তান দূতাবাসের কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাজহারের সঙ্গেও খালিদের ঘনিষ্ঠতা রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: