রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

ক্রমেই কালো হয়ে যাচ্ছে তাজমহল



cms.somewhereinblog.net__1আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বিশ্বের অনিন্দ সুন্দর সমাধিসৌধ তাজমহল কালো হয়ে যাচ্ছে। ভারতের আগ্রায় স্থাপিত এই সমাধিটি বায়ুদূষণের কারণে ক্রমেই কালো হয়ে যাচ্ছে। কোথাও আবার সাদা মার্বেল পাথরের ওপর পড়েছে গাঢ় বাদামি ছোপ।

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা টানা আট মাস গবেষণার পর জানিয়েছেন, বায়ুদূষণই শেষ করে দিচ্ছে বিশ্বের প্রেমের প্রতীক এই সমাধিসৌধকে। মাইকেল বার্গিনের নেতৃত্বে জর্জিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব আর্থ অ্যান্ড অ্যাটমোসফিয়ারিক সায়েন্সের একদল গবেষক ২০১১ সালের নভেম্বর থেকে ২০১২ সালের জুন পর্যন্ত দীর্ঘ গবেষণার পর এক প্রতিবেদনে বলেছেন, বায়ুদূষণই তাজমহলের সর্বনাশ ঘটাচ্ছে।

আগ্রা শহরের শত শত গাড়ির ধোঁয়া এবং ধুলাবালু ক্ষতি করছে বিশ্ব ঐতিহ্য এই মর্মরসৌধের। এছাড়াও আগ্রা থেকে দূরে যে কারখানাগুলো রয়েছে, সেসবের বিষাক্ত ধোঁয়া বাতাসে মিশে রাসায়নিকের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা ক্ষয় ধরাচ্ছে তাজমহলের পাথরে।

পুরাতত্ত্ব সংরক্ষণ কর্তৃপক্ষ ক্ষয়ধরা পাথর সরিয়ে সস্তা মার্বেল পাথর বসাচ্ছে। তা কিছুদিন পরই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এমনকি, আগ্রার রাস্তার ধারে জমে থাকা বর্জ্য থেকে সৃষ্ট বিষাক্ত গ্যাসও তাজমহলের ক্ষতি করছে বলে দাবি করা হয়েছে ওই গবেষণায়।

জর্জিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এই দাবিকে সমর্থন করেছে কানপুর আইআইটি এবং উইসকনসিন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা। গবেষণা প্রতিবেদনটি এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি জার্নালে প্রকাশিত হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: