সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

কানাইঘাটে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক নিহত



10799817_563599733742213_916817653_nকানাইঘাট ডনা সীমান্তে ভারতীয় খাসিয়ার গুলিতে বাংলাদেশী নিহত

কানাইঘাট (সিলেট) প্রতিনিধি: কানাইঘাট উপজেলার লক্ষ্মীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির সোনাতনপুঞ্জি গ্রামে পূর্ব শত্র“তার জের ধরে গত রবিবার রাতে মোক্তার আলী (৩৫) নামের এক ব্যক্তিকে প্রতিপক্ষের লোকজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে নির্মম ভাবে হত্যা করেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার দায়ে কানাইঘাট থানা পুলিশ ঐ দিন রাতেই অভিযান চালিয়ে সোনাতনপুঞ্জি গ্রামের আরমান আলীর দুই স্ত্রী সুহাদা খাতুন (২৮) ও সুহাদা বেগম (২৫) কে গ্রেফতার করেছে। জানা যায়, সোনাতনপুঞ্জি গ্রামের ইরফান আলীর পুত্র আব্দুস শুকুর (৪২), মুজম্মিল আলীর পুত্র আরমান আলীর সাথে একই গ্রামের মশাহিদ আলীর পুত্র মোক্তার আলী (৩৫)’র পূর্ব বিরোধ ছিল। এর জের ধরে গত রবিবার সীমান্তবর্তী বাদশাহ বাজার থেকে রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে নিজ বাড়ী সোনাতনপুঞ্জি গ্রামে বাড়ি ফেরার পথে পথিমধ্যে বাড়ির পাশেই পথরোধ করে একটি ধান ক্ষেতে নিয়ে আব্দুস শুকুর ও আরমান আলীগংরা মোক্তার আলীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে উপর্যুপরি আঘাত করে ফেলে রেখে যায়। পরে আহতের আর্তচিৎকারে স্থানীয় লোকজন তাকে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসার পথে পথিমধ্যে মোক্তার আলী মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। খবর পেয়ে রাতেই কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল চৌধুরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশ উদ্ধার ও সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে পোস্টমর্টেমের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার দায়ে হামলার নেতৃত্বদানকারী আরমান আলীর দুই স্ত্রী সুহাদা খাতুন ও সুহাদা বেগমকে পুলিশ গ্রেফতার করে। গতকাল সোমবার হত্যাকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন সিলেটের এডিশনাল পুলিশ সুপার নাঈমুল হাসান ও সহকারী পুলিশ সুপার উত্তর সার্কেল মহিউদ্দিন সোহেল। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত দুই মহিলাসহ ১০ জনকে আসামী করে নিহত মোক্তার আলীর পিতা মশাহিদ আলী বাদী হয়ে কানাইঘাট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামীদের গ্রেফতার করতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে ওসি আব্দুল আউয়াল চৌধুরী জানিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: