শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

ইসরাইলকে নয়া বিস্ফোরণের হুমকি হামাসের



HAMASআন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইহুদিবাদী ইসরাইলকে নয়া বিস্ফোরণের হুমকি দিয়েছে হামাস। ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলনটি তেল আবিবকে সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, গাজা উপত্যকার ওপর অবিরোধ চালিয়ে গেলে আবার ইসরাইল অভিমুখে হামলা শুরু হবে।

হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জাদ্দিন আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুখপাত্র আবু ওবেইদা গাজায় বলেছেন, “আমরা সব পক্ষকে জানাতে চাই” গাজার ওপর অবরোধ এবং এ উপত্যকার পুনর্গঠনের পথের প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর করা না হলে নতুন বিস্ফোরণ ঘটানো হবে।” গাজার রাফাহ শহরে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে এ হুঁশিয়ারি উচ্চরণ করা হয়। সমাবেশে অন্তত দেড় হাজার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

গাজায় সাম্প্রতিক ৫০ দিনের যুদ্ধে গাজার সামরিক শাখার শহীদ কমান্ডার ও যোদ্ধাদের স্মরণে এ সমাবেশ ডাকা হয়েছিল। আবু ওবেইদা বলেন, “যদি গাজা উপত্যকার পুনর্গঠন শুরু করা না যায় তাহলে যে বিস্ফোরণ ঘটবে তার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী থাকবে ইহুদিবাদী ইসরাইল। তিনি বলেন, যুদ্ধ এখনো শেষ হয়ে যায়নি।”

ইহুদিবাদী ইসরাইল ২০০৭ সাল থেকে গাজার ওপর কঠোর অবরোধ আরোপ করে রেখেছে। পাশপাশি মিশর সরকারও গাজার সঙ্গে তার একমাত্র ক্রসিং পয়েন্ট রাফা বন্ধ করে দিয়েছে। এ অবস্থায় ১৭ লাখ জনসংখ্যা অধ্যুষিত গাজা উপত্যকা বিশ্বের সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত কারগারে পরিণত হয়েছে। বহির্বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ না থাকায় খাদ্য ও পরিধেয় বস্ত্রসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের অভাবে মানবেতর জীবনযাপন করছে গাজাবাসী।

গত জুলাই ও আগস্ট মাসে সংঘটিত গাজা যুদ্ধের জের ধরে এ উপত্যকার ওপর থেকে অবরোধ তুলে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় তেল আবিব। কায়রোয় মিশরের মধ্যস্থতায় এক লিখিত চুক্তিতে ইহুদিবাদী ইসরাইল এ প্রতিশ্রুতি দেয় এবং প্রাথমিকভাবে দু’টি ক্রসিং পয়েন্ট খুলেও দেয় মানবতাবিরোধী এ সরকার। কিন্তু সম্প্রতি আবার তা বন্ধ করে দিয়ে দখলদার এ শক্তি গাজা উপত্যকাকে আবার ২০০৭ সাল পরবর্তী অবস্থায় নিয়ে গেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: