শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

ইটিভি চেয়ারম্যানের রিমান্ড-জামিন নামঞ্জুর



5. ETVনিউজ ডেস্ক::
বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একুশে টেলিভিশনের (ইটিভি) চেয়ারম্যান আবদুস সালামের জামিন ও রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। তাকে ৫ কার্যদিবসের মধ্যে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে এ আদেশ দেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগার সূচনার আদালত।

এর আগে মঙ্গলবার আবদুস সালামকে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে ডিবি পুলিশ। এ সময় তার জামিনের আবেদন করেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট কাজী নজীবউল্যাহ হিরু।

শুনানির জন্য প্রয়োজনীয় কেস ডকেট না থাকায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগার সূচনা বৃহস্পতিবার রিমান্ড ও জামিন শুনানির জন্য দিন ধার্য করে আসামি আব্দুস সালামকে কারাগারে পাঠিয়ে দেন।

মঙ্গলবার মধ্যরাতে ইটিভি কার্যালয়ের নিচ থেকে সালামকে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ। এরপর তাকে পর্নোগ্রাফি আইনের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

গত বছরের ২৬ নভেম্বর রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলাটি (নম্বর ১৪) দায়ের করেন কানিজ ফাতেমা নামের এক মহিলা। মামলায় ৪ জনকে আসামি করা হলেও আবদুস সালামের নাম ছিল না। আবদুস সালামের বিরুদ্ধে এ কাজে সহায়তার অভিযোগ আনা হয়।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, আসামিরা মামলার বাদিনীর অজ্ঞাতে তার স্থির ও ভিডিওচিত্র গোপন ক্যামেরায় ধারণ করে অন্য মহিলার অশ্লীল ছবির সঙ্গে বাদিনীর মুখমণ্ডল সংযুক্ত করে ছবিগুলো ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট, মোবাইল ফোন, ফেসবুক ও বিভিন্ন ইলেকট্রিক ডিভাইসে ছড়িয়ে দেয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: