বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

আদালত-চত্বরে এক নারীর অঙ্গহানি!



40437আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: দৃশ্যটা এমন- আদালত-চত্বরে ‘বাঁচাও, বাঁচাও’ বলে চেঁচাচ্ছেন এক নারী। আর সামনে দাঁড়ানো অন্য এক নারী কামড়ে ধরে রয়েছেন ওই নারীর বাঁ হাতের কড়ে আঙুল এবং তখনই সেই আঙুল দুভাগ হয়ে পড়ল মাটিতে! মঙ্গলবার দুপুরে পশ্চিমবঙ্গের শিয়ালদহ আদালত চত্বরে এমন দৃশ্য দেখে চমকে ওঠেন আইনজীবীরা।
খবরে বলা হয়, কয়েকজন আইনজীবী তড়িঘড়ি করে দুই নারীকে ছাড়িয়ে দেন। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে। ঘটে গিয়েছে এক নারীর অঙ্গহানি! এক আইনজীবী বলেন, ‘সন্ধ্যাবতী শর্মা নামে ওই নারীর আঙুল কামড়ে কেটেই নিরস্ত হননি অন্য নারীটি। কাটা আঙুলটা নিয়ে নেন নিজের মুখের মধ্যে। আক্রান্তের পরিত্রাহি চিৎকার আর হুটোপাটির মধ্যে বিপদ বুঝে এক সময় সেটি মেঝেতে ফেলে দেন আক্রমণকারী নারী। কাটা আঙুলটা তখন মাটিতে পড়ে নড়ছিল!’
পুলিশ জানায়, ঘটনার পরেই সন্ধ্যাবতীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সুমিত্রা নাউ নামে আক্রমণকারী নারীটিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
সন্ধ্যাবতী ও সুমিত্রা সম্পর্কে বেয়ান। সুমিত্রার ছেলের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল সন্ধ্যাবতীর মেয়ের। তাদের বিচ্ছেদের মামলা চলছে। সেই জন্যই এ দিন দুই পরিবার আদালতে এসেছিল। আর সেখানেই ঘটে এই কান্ড।
ঘটনার জন্ম এভাবে- এ দিন শুনানির পরে সুমিত্রার ছেলে এজলাসের বাইরে আসতেই তার স্ত্রী অর্থাৎ সন্ধ্যাবতীর মেয়ে চড় মারেন থাকে। মেয়ে জামাইকে মারছে দেখে মা সন্ধ্যাবতীও মেয়ের সঙ্গে জামাইর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন। স্ত্রী আর শাশুড়ির হাতে ছেলেকে নাস্তানাবুদ হতে দেখে সুমিত্রা কামড়ে ধরেন বেয়ান সন্ধ্যাবতীর কড়ে আঙুল।
এক আইনজীবী বলেন, ‘মামলা নিয়ে আদালত-চত্বরের বাইরে গুলির লড়াই দেখেছি। কিন্তু মামলা লড়তে এসে এক মহিলা কামড়ে অন্য মহিলার আঙুল কেটে নিচ্ছেন, এমনটা আগে কখনও দেখিনি!’
সূত্র : রাইজিংবিডি

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: