মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
এমপি না হয়েও ল্যান্ড ক্রুজারে শুল্কমুক্ত সুবিধা পেলেন মুহিত  » «   খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়ল এক বছর  » «   নবজাতককে মুখে নিয়ে কুকুরের টানাটনি, উদ্ধার করলেন এসআই  » «   নতুন শ্রমবাজার অনুসন্ধানে উদ্যোগী হতে হবে: প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী  » «   জনগণের সংকট উত্তরণে নতুন নির্বাচনের বিকল্প নেই: ফখরুল  » «   পানি বণ্টনের নতুন ফর্মুলা খুঁজছে বাংলাদেশ-ভারত: জয়শঙ্কর  » «   শেখ হাসিনার ছাত্রলীগে জামায়াতি আঁচড়!  » «   অবশেষে ক্ষমা চাইলেন জাকির নায়েক  » «   অপরাধীদের শাস্তি দ্রুত নিশ্চিত না করায় ধর্ষণ বাড়ছে: হাইকোর্ট  » «   সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ‘স্পিড গান’  » «   কমলাপুর রেলওভার ব্রিজের ত্রুটির চিত্র তুলে ধরলেন ব্যারিস্টার সুমন  » «   জিন্দাবাজারে মিললো ২টি গোখরাসহ ৬ বিষধর সাপ  » «   কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনায় বসছেন ট্রাম্প- মোদী!  » «   মাত্র ১০০ মিটার দূরেই শত্রু  » «   অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «  

সালমান-আলিয়াকে ‘চাচা-ভাতিজি’র জুটি বলে বিদ্রুপ!



বিনোদন ডেস্ক:: খ্যাতিমান পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির পরবর্তী ছবি ‘ইনশাল্লাহ’-তে প্রথমবারের মতো জুটি বাঁধতে চলেছেন সুপারস্টার সালমান খান ও আলিয়া ভাট। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর বানসালির ছবিতে সালমানকে পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত ভক্তরা। তবে প্রায় ৩০ বছরের ছোট আলিয়ার সঙ্গে সালমানের ‘রোমান্স’ মানতে পারছেন না নেটিজেনদের অনেকেই।

যদিও এখনো নিশ্চিত খবর বেরোয়নি, প্রধান এ দুই চরিত্রকে রোমান্টিক অ্যাঙ্গেলে দেখানো হবে কি না। সালমান-আলিয়াকে ‘লাভ কাপল’ হিসেবে দেখতে রাজি নন অনেকে।

মাইক্রো-ব্লগিং সাইট টুইটারে অনেকে মন্তব্য করেছেন, আলিয়ার সঙ্গে অনস্ক্রিনে রোমান্স করার মতো বয়স নেই সালমানের। আলিয়ার (২৬) বয়সের তুলনায় সালমানের (৫৩) বয়স প্রায় দ্বিগুণ। আর তাই সিনেমায় দুজনকে লাভবার্ড হিসেবে দেখাটা স্বস্তিকর হবে না।

কোনো কোনো ভক্ত পরামর্শ দিয়েছেন, আলিয়ার চাচা বা বাবার চরিত্রে সালমান অভিনয় করলেই তা ফিট হবে।অনেকে অবশ্য ‘ডিয়ার জিন্দেগি’ সিনেমার উদাহরণ টেনেছেন। ওই ছবিতে আরেক সুপারস্টার শাহরুখ খানের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন আলিয়া ভাট। তাঁদের রসায়ন দর্শক-হৃদয়ে সাড়া ফেলেছিল। ইতিবাচক ভক্তরা বানসালির ওপর আস্থা রাখছেন। তাঁরা বলছেন, বানসালি বিশেষ রসায়ন সৃষ্টি করবেন। সিনেমা সম্পর্কে পুরোপুরি না জেনে আগে থেকে নেতিবাচক হওয়া ঠিক নয়।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অবশেষে বানসালি ও সালমান একত্র হচ্ছেন। ২০ বছর পর এই পরিচালক-অভিনেতার পুনর্মিলন হতে চলেছে। ১৯৯৯ সালে তাঁরা ‘হাম দিল দে চুকে সনম’ ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন। ওই ছবিতে সালমান ছাড়াও ছিলেন ঐশ্বরিয়া রাই ও অজয় দেবগন। ‘পদ্মাবত’ ছবির পর বানসালির পরবর্তী প্রকল্প নিয়ে শুরু হয় জল্পনা।

টুইটারে ছবির ঘোষণা দিয়েছেন সালমান খান নিজেও। গতকাল এক টুইট-বার্তায় তিনি লেখেন, “২০ বছর পর অবশেষে সঞ্জয় ও আমি ওঁর পরবর্তী ছবি ‘ইনশাল্লাহ’-তে ফিরলাম। আলিয়ার সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে আছি। ইনশাল্লাহ, এই যাত্রায় আমরা সবাইকে পাশে পাব।”

সালমান খানের সঙ্গে জুটি বাঁধার সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত আলিয়া ভাটও। টুইট-বার্তায় তিনি লেখেন, এই যাত্রায় যুক্ত হতে আর তর সইছে না।সালমান খানের প্রযোজনা সংস্থা এসকেএফ ফিল্মস সঞ্জয় লীলা বানসালির ছবিটি সহ-প্রযোজনা করবে।এর আগে গুঞ্জন ছিল, সঞ্জয় লীলা বানসালির আসন্ন ছবিতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়াকে দেখা যেতে পারে। তবে শেষ পর্যন্ত সালমানের নায়িকা হচ্ছেন আলিয়া ভাট।

সালমান ও বানসালি যে একসঙ্গে কাজ করবেন, সে খবর প্রথমে দিয়েছিলেন প্রযোজনা সংস্থা বানসালি প্রডাকশনসের প্রধান নির্বাহী প্রেরণা সিং। কিছুদিন আগে তিনি বলেছিলেন, ‘হ্যাঁ, একটি প্রেমের গল্পে সালমান খান ও সঞ্জয় লীলা বানসালির পুনর্মিলন হচ্ছে। ছবির কাহিনীর দিকে তাকালে তাঁদের যৌথতাই হবে সেরা।’

১৯৯৬ সালে ‘খামোশি : দ্য মিউজিক্যাল’ দিয়ে পরিচালক হিসেবে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন বানসালি। বানসালির ‘সাওয়ারিয়া’ ছবিতে বিশেষ দৃশ্যে দেখা গিয়েছিল সালমান খানকে, এ ছবি দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় রণবীর কাপুর ও সোনম কাপুরের।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: