রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেটে ডাক্তারদের প্রাইভেট চেম্বার বন্ধ, ফার্মেসিতেই চিকিৎসা  » «   ৯ এপ্রিল পবিত্র শবে বরাত  » «   এবার স্পেনও ছাড়ালো চীনকে, ২৪ ঘণ্টায় ৭৩৮ মৃত্যু  » «   সিলেট বিভাগে বৃহস্পতিবার থেকে গণপরিবহন বন্ধ  » «   করোনা মোকাবিলায় দেশে দেশে লকডাউন  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তি, করোনা বদলে দিচ্ছে রাজনীতি  » «   খালেদার মুক্তির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাল যুক্তরাষ্ট্র  » «   খালেদা জিয়ার মুক্তিতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক দেখছেন ড. কামাল  » «   করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে গ্রিসে লকডাউন  » «   বান্দরবানের ৩ উপজেলা লকডাউন  » «   ইতালিতে একদিনে ৭৪৩ জনের মৃত্যু  » «   ফ্রান্সে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৮৬ মৃত্যু  » «   নিউইয়র্কে করোনায় আক্রান্ত ২০ হাজার ছাড়াল  » «   সাধারণ ছুটিতে চালু থাকবে ব্যাংক  » «   করোনাভাইরাস: উৎকণ্ঠিত সিলেট, উদ্বিগ্ন মানুষ  » «  

আ’লীগ নেতাকর্মীর বাধার মুখে ফিরে গেলেন খালেদা



31. khaledaনিউজ ডেস্ক::
ঢাকার উত্তরা এলাকায় আজ রোববার তাবিথ আউয়ালের পক্ষে প্রচার চালাতে গিয়ে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের বাধার মুখে পড়েন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। বাধার মুখে তাঁকে উত্তরা-৭ নম্বর সেক্টর থেকে বিমানবন্দরের দিকে ফিরে আসতে হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ সন্ধ্যার দিকে উত্তরা-৭ নম্বর সেক্টরের নর্থ টাওয়ারে তাবিথ আউয়ালের পক্ষে প্রচারণা চালান খালেদা জিয়া। সেখান থেকে বের হয়ে গাড়িবহরসহ তিনি আবদুল্লাপুরের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা মূল সড়কে নেমে আসেন। তাঁরা খালেদা জিয়ার নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সিএসএফের গাড়ির সামনে অবস্থান নিয়ে সিএসএফের গাড়ি ধরে ঝাঁকানোর চেষ্টা করেন এবং গাড়ি লক্ষ্য করে কালো পতাকা ছুড়ে মারেন। তাঁদের অবস্থানের মুখে আবদুল্লাপুরের দিকে যেতে না পেরে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর আবার বিমানবন্দরের দিকে চলে যায়।

এর আগে আজ বিকেলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি-সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের পক্ষে দ্বিতীয় দিনের মতো মাঠে নামেন খালেদা জিয়া। তিনি উত্তরা-১ নম্বর এলাকায় পৌঁছালে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা কালো পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ করেন।

আজ বিকেল সাড়ে চারটার দিকে খালেদা জিয়া নির্বাচনী প্রচার চালাতে তাঁর গুলশানের বাসা থেকে বের হন। তিনি উত্তরা-১ নম্বর সেক্টরে পৌঁছালে বিএনপির নেতা-কর্মীরা ২৫-৩০টি মোটরসাইকেল নিয়ে তাঁর গাড়িবহরে যোগ দেন। গাড়িবহর কিছু দূর এগোলে উল্টো দিক থেকে উত্তরা আওয়ামী লীগের সভাপতি তোফাজ্জল ও সাধারণ সম্পাদক হাবিব হাসানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা কালো পতাকা হাতে নিয়ে বিক্ষোভ করেন। তাঁরা খালেদা জিয়ার গাড়ি ঘেরাওয়ের চেষ্টা করেন। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ‘আমার ভাই মরল কেন, খুনি খালেদা জবাব দে’, ‘পাকিস্তানের প্রেতাত্মা, পাকিস্তানে ফিরে যা’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় খালেদা জিয়ার সঙ্গে থাকা পুলিশ ও তাঁর নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মীরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন। কিন্তু ওই ব্যক্তিরা খালেদা জিয়ার গাড়ির সঙ্গে এগোতে থাকে। কিছুক্ষণ পর খালেদার গাড়ি মূল সড়কে উঠে দ্রুত বেগে চলে যায়।

পরে বিএনপির চেয়ারপারসন উত্তরা-৩ নম্বর সেক্টরে এসবি প্লাজা ও আমির কমপ্লেক্সে গিয়ে তাবিথের পক্ষে প্রচার চালান। তিনি বিভিন্ন দোকানে ঢুকে দোকানি ও ক্রেতাদের কাছে তাবিথের পক্ষে ভোট চান। বিএনপির কয়েক শ নেতা-কর্মী তাঁর সঙ্গে আছেন।

সন্ধ্যা ছয়টার দিকে খালেদা জিয়া উত্তরা-৭ নম্বর সেক্টরে পৌঁছালে সেখানেও কালো পতাকা নিয়ে আগে থেকে অবস্থান নেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। তাঁরা জয় বাংলাসহ বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। অন্যদিকে বিএনপির নেতা-কর্মীরাও খালেদার সঙ্গে মিছিল নিয়ে যান। তবে, দুপক্ষের মধ্যে কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। দুপক্ষের মাঝে পুলিশ ছিল বলে জানা যায়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: