মঙ্গলবার, ২ জুন ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

হংকংয়ের বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিল বাতিল



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: দীর্ঘ ও একটানা বিক্ষোভের মুখে বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিলটি বাতিল করেছে হংকং কর্তৃপক্ষ। এর আগে ব্যাপক বিক্ষোভের মুখে স্থগিত করা হয়েছিলো এই বিলটি। বুধবার হংকংয়ের আইনসভায় আনুষ্ঠানিকভাবে এই বিল বাতিলের কথা জানানো হয়। বিচারের জন্য হংকংয়ের বাসিন্দাদের চীনের মূলভূখণ্ডে পাঠানোর সুযোগ রেখে করা ওই বিলটির কারণে দীর্ঘদিন ধরেই বিক্ষোভ করে আসছে কয়েক লাখ মানুষ।

গত এপ্রিলে এই বিতর্কিত বিলটি পার্লামেন্ট পাস করার উদ্যোগ নিতেই বিক্ষোভে ফেটে পড়ে হংকংয়ের সাধারণ মানুষ। এর প্রতিবাদে সড়কে নেমে আসে হাজার হাজার মানুষ। তাদের প্রতিবাদের মুখে সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয় বিলটি। কিন্তু এই বিতর্কিত বিল বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ অব্যাহত থাকে মাসের পর মাস ধরে।

এই অপরাধী প্রত্যর্পণ বিলে চীনকে হংকংয়ের সন্দেহভাজন অপরাধীদের নিজ ভূখণ্ডে নিয়ে বিচার করার অধিকার দেয়া হয়েছিলো। আর এ কারণেই এই বিলের বিরুদ্ধে ক্ষেপে উঠেছিল হংকংয়ের বাসিন্দারা। তাদের আশঙ্কা ছিলো, এ ধরনের আইন প্রবর্তনের ফলে হংকংয়ের বাসিন্দারা ন্যায্য বিচার পাবে না। ফলে প্রধান প্রধান পাঁচটি দাবিতে বিক্ষোভ চলতে থাকে। এক পর্যায়ে হংকংয়ের বেইজিংপন্থী নেতা ক্যারি ল্যামেরও পদত্যাগ দাবি করেন বিক্ষোভকারীরা।

ওই বিলের পক্ষে যারা সমর্থন জানিয়েছেন তারা বলছেন, এই আইনটি রাজনৈতিকভাবে ব্যবহারের ক্ষেত্রে সুরক্ষা রাখা হয়েছে। চীনের মূল ভূখণ্ড থেকে ধর্মীয় বা রাজনৈতিকভাবে নিপীড়নের মুখোমুখি হওয়া যে কাউকে রক্ষার জন্য এই আইনে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। তবে প্রথম থেকেই এই বিল নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়।

১৯৯৭ সালে ব্রিটিশরা হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তরের পর সেখানে এটিই সবচেয়ে বড় বিক্ষোভের ঘটনা। অবশেষে এই ব্যাপক ও দীর্ঘমেয়াদি বিক্ষোভের মুখে নতি স্বীকার করতে বাধ্য হলেন চীন নিয়ন্ত্রিত হংকংয়ের প্রশাসন। বাতিল করলেন প্রত্যার্পণ বিলটি।

সূত্র: বিবিসি

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: