শনিবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

সুনামগঞ্জে বাবাকে হত্যার দায়ের ছেলের যাবজ্জীবন



নিউজ ডেস্ক:: সুনামগঞ্জের ছাতকে বাবাকে হত্যার দায়ে ছেলেকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন বুধবার এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম আবদুর রশিদ। তিনি ছাতক উপজেলার মঈনপুর গ্রামের শহিদ মিয়ার ছেলে।

মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৩ মে বিকেলে আবদুর রশিদ বাড়ির একটি মোরগ ধরে নিয়ে বাজারে বিক্রি করে দেন। বাজার থেকে বাড়িতে আসার পর শহিদ মিয়া ছেলের কাছে মোরগ বিক্রির কারণ জানতে চান। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আবদুর রশিদ তার বাবাকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। এতে গুরুতর আহত হন শহিদ। পরে তাকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ওইদিন রাতে তিনি মারা যান। ঘটনার পরদিন শহিদ মিয়ার স্ত্রী নুরুননেছা বাদী হয়ে ছেলে আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এই মামলায় তদন্ত শেষে পুলিশ আবদুর রশিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়। মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে বুধবার রায় ঘোষণা করেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় আসামি আবদুর রশিদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলায় বাদী পক্ষে ছিলেন আইনজীবী আবু তাহের মোহাম্মদ রুহুল আমিন তুহিন। আসামি পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. কামাল হোসেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: