বৃহস্পতিবার, ১১ অগাস্ট ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

শীঘ্রই সুনামগঞ্জে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হবে: পরিকল্পনামন্ত্রী



সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা:: আমরা একটি বঞ্চিত জাতি ছিলাম। আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। বিদেশের মানুষ দ্বারা শাসিত ছিলাম। সে সকল মানুষ আমাদের গায়ের রং কাপড় পরিবেশ হাওয়াকে অপমান করেছে। তারপর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এই দেশের মানুষকে স্বাধীনতা উপহার দিয়েছে। এখন বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠা করাই আওয়ামী লীগের মূলমন্ত্র। শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজে নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান এসব কথা বলেন।

এসময় নিজেদের ইতিহাস জানার তাগিদ দিয়ে তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন- সকল প্রকার সাম্প্রদায়িকতা, হীনমন্যতা এই সকল খারাপ কাজ কখনো করবে না। তোমরা অস্বীকার করবে জাতপাতকে, বর্ণবাদকে। এতে করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলা সম্ভব।

তিনি বলেন, ১০ বছরে আমরা বিশাল পরিবর্তন করেছি। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ নিয়ে গিয়েছি। আমরা নিরক্ষরতার বেড়া জাল ভেঙে ৮০ কোটায় স্বাক্ষরতাকে নিয়ে এসেছি। আর ৫-৭ বছরের মধ্যে ৯০ কোটায় চলে আসবো। আমাদের দেশে বর্তমানে ২০০ মতো বিশ্ববিদ্যালয় আছে। এই সুনামগঞ্জে অতিশীঘ্রই আধুনিক মানের বিশাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হবে। এই বিশ্ববিদ্যালয় তৈরিতে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করবো। এখন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন তৈরি হচ্ছে। আগামী সংসদে এটি পাশ হবে।

মন্ত্রী মান্নান বলেন- ‘আমরা ইতিমধ্যে মেডিকেল কলেজের কাজ শুরু করেছি। টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ তৈরি করা হচ্ছে। তাছাড়া তোমাদের জন্য আমরা অনেক কিছু করবো। আমরা রেললাইন নিয়ে আসবো ছাতক থেকে সুনামগঞ্জে। তোমাদের জন্য সিলেট-সুনামগঞ্জের যে সড়ক সেটিকে আঞ্চলিক পর্যায়ে চার লেনে উন্নিত করা হবে। রাণীগঞ্জে সেতু বানিয়ে সরাসরি ঢাকা যাওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। নেত্রকোনার সাথে রেল ও সড়ক নিয়ে যাবো।’

সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ নীলিমা চন্দ্রের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সুনামগঞ্জ-সিলেট (সংরক্ষিত) আসনের সাংসদ অ্যাড. শামীমা শাহরিয়ার, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, শিক্ষাবিদ পরিমল কান্তি দে, কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল অধ্যক্ষ মাজহারুল ইসলাম, নবীনবরণ অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক সাব্বির মিয়া প্রমুখ।

আলোচনা সভার শুরুতে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ ও জেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে দুইটি কেক কাটেন পরিকল্পনামন্ত্রী। আলোচনা সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানকে মানপত্র ও শিক্ষার্থীর আঁকা ছবি তুলে দেন শিক্ষার্থীরা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: