বৃহস্পতিবার, ৬ মে ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

রানা প্লাজা ধস: রানাসহ ৪২ জনের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ



13. rana plzaনিউজ ডেস্ক::
সাভারে ২০১৩ সালে ধসে যাওয়া রানা প্লাজার মালিক সোহেল রানার বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। আজ সোমবার সোহেল রানাসহ ৪২ জনের বিরুদ্ধে দুই মামলার চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। রানা প্লাজা ট্র্যাজেডির দুই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার বিজয় কৃষ্ণ কর জানান, ‘আমরা ভবনের মালিক সোহেল রানা, তার বাবা-মাসহ ৪২ জনের বিরুদ্ধে মানুষ হত্যার অভিযোগ এনেছি। রানা প্লাজা ধসে মানুষের মৃত্যু আসলে হত্যাকাণ্ডই ছিল। অভিযুক্তরা এর দায় এড়াতে পারবে না।’ অবহেলার দ্বারা মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগে দণ্ডবিধি আইনে একটি এবং ইমারত নির্মাণ আইন অপর চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে।

রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় অন্তত এক হাজার ১৩৬ জন মারা যায়। প্রায় আড়াই হাজার গার্মেন্ট শ্রমিককে ধ্বংসস্তুপ থেকে উদ্ধার করা হয়। ভবনে ফাটল দেখা যাওয়ার পরও গার্মেন্ট কারখানাগুলো চালু রাখা হয় এবং শ্রমিকদের কাজে আসতে বাধ্য করা হয়। বিজয় কৃষ্ণ কর বলেন, সোহেল রানা ও গার্মেন্ট মালিকরা জেনেশুনে ঠাণ্ডা মাথায় শ্রমিকদের মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেয়।

চার্জশিটে অভিযুক্তদের মধ্যে সোহেল রানা, রানার বাবা-মা, গার্মেন্টস মালিক, ম্যানেজার, রানাকে পালাতে সহায়তাকারী, সাভার পৌরসভার মেয়র এবং ১২ জন সরকারি কর্মকর্তা আসামি হিসেবে রয়েছেন। চার্জশিটে প্রায় ৭৫০ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় ২০১৩ সালের ২৫ এপ্রিল সাভার থানায় আলাদা দুটি মামলা দায়ের করা হয়। একটি অবহেলাজনিত মৃত্যু চিহ্নিত করে পুলিশের হত্যা মামলা, অপরটি আইন লঙ্ঘন করে ভবন নির্মাণ করায় রাজউকের ইমারত আইনে দায়ের করা মামলা।

হত্যা মামলার আসামিদের মধ্যে আরও রয়েছেন আব্দুল খালেক ওরফে খালেক কুলু, মোহাম্মদ আলী খান, রেফাত উল্লাহ, আবুল হাসান, অনীল কুমার দাস, শাহ আলম মিঠু, এমায়েত হোসেন, রাকিবুল ইসলাম, আলম মিয়া, বজলুল সামাদ আদনান, মাহমুদুর রহমান, আনিছুর রহমান, আমিনুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক খান, আলমগীর, রাসেল মধু ও সরোয়ার কামাল ।

ইমারত নির্মাণ আইন না মেনে ভবন নির্মাণ করায় রাজউকের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হেলাল উদ্দিন ১৩ জনকে আসামি করে একই দিনে সাভার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এ মামলার আসামিদের মধ্যে রয়েছেন সোহেল রানা, মোহাম্মদ আলী খান, এমায়েত হোসেন, আবদুল খালেক, রেফাত উল্লাহ, বজলুল সামাদ আদনান, মাহমুদুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, আমিনুল ইসলাম, আনিছুর রহমান, রফিকুল ইসলাম ও সরোয়ার কামাল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: