শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «  

মেসিদের লিগে এক দলের ৩৫ শতাংশই করোনা আক্রান্ত



ক্রীড়াজগতের অন্যান্য জায়গার মতো করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে স্প্যানিশ ফুটবলের সবচেয়ে বড় আসর লা লিগাতেও। যেখানে বার্সেলোনার হয়ে খেলেন বিশ্বসেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। দুই সপ্তাহের জন্য মেসিদের খেলায় বিরতি টানা হয়েছে।

লা লিগারই ক্লাব ভ্যালেন্সিয়া, তারা নিজেরাই জানাল-ক্লাবের খেলোয়াড় এবং স্টাফ মিলিয়ে ৩৫ শতাংশই করোনা পজিটিভ হিসেবে ধরা পড়েছেন। অথচ যারা পজিটিভ হয়েছেন, তাদের কারোরই আগে দৃশ্যমান কোনো লক্ষণ ছিল না।

রোববার ক্লাবটি জানায়, তাদের দলের পাঁচজন কোভিড-১৯ আক্রান্ত। এর মধ্যে আছেন আর্জেন্টিনার ইজেকুয়েল গ্যারে এবং ফ্রান্সের ইলিয়াকুইম ম্যাঙ্গালা। তারা দুজনই ভাইরাস আক্রান্তদের সঙ্গে মিশেছিলেন। এছাড়া স্টাফদের মিলিয়ে নয়জনের মতো আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়।

ভ্যালেন্সিয়া এক বিবৃতিতে বলেছে, ভ্যালেন্সিয়ার কোচিং স্টাফ এবং খেলোয়াড়দের মধ্যে আরও কয়েকটি টেস্ট করার পর কোভিড-১৯ করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

গত মাসে চ্যাম্পিয়নস লিগে আটলান্টার বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে মিলানে গিয়েছিল ভ্যালেন্সিয়া। সান সিরো স্টেডিয়াম পুরোটাই ছিল দর্শকে ঠাসা। তখন পর্যন্ত ইতালিতে জনসমাগম নিষিদ্ধ হয়নি।

ভ্যালেন্সিয়া জানায়, চ্যাম্পিয়নস লিগ ম্যাচের পর শক্তভাবে নিয়ম কানুন আরোপ করা হয় ক্লাবের ওপর। কিন্তু সর্বশেষ ফলাফলে দেখা গেছে, এই ধরনের ম্যাচ খেলতে যাওয়ার পর প্রায় ৩৫ শতাংশ করোনা টেস্টে পজিটিভ হয়েছেন।

সবার বেলায়ই লক্ষণ প্রকাশ পায়নি। তাদের এখন ঘরে আলাদা করে রাখা হয়েছে। চিকিৎসা চলছে, ট্রেনিং পরিকল্পনার বাইরে রাখা হয়েছে তাদের।সূত্র : জাগো নিউজ

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: