বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

মন তো বেঁধেছি, ঘরটা বাঁধব



যে সময় একটার পর একটা বিচ্ছেদর খবর শোনা যাচ্ছে, সে অস্থির সময়ে নদীর মতো ধীর লয়ে বয়ে যাচ্ছে অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা ও নির্মাতা অনিমেষ আইচের প্রণয়। সম্প্রতি দুজনে মিলে কিনেছেন একটি নতুন মডেলের গাড়ি। ঘর না বাঁধতেই কেন গাড়ি কিনলেন তাঁরা? এ প্রশ্নের সূত্র ধরে ভাবনা জানালেন অনেক কথা।

গতকাল উত্তরার একটি শো-রুম থেকে প্রায় ২৫ লাখ টাকায় একটি কালো গাড়ি কিনেছেন ভাবনা ও অনিমেষ। ঘর না বাঁধতেই কেন গাড়ি কিনলেন? ভাবনা বললেন, মন তো বেঁধেছি। একসঙ্গে ঘরটা কিনে পরে ঘর বাঁধব। একটি গাড়ি কেন দুজন মিলে কিনলেন? জানতে চাইলে ভাবনা বলেন, আমরা দুজন তো একজনই। তা ছাড়া একা গাড়ি কেনার মতো ধনাঢ্য মানুষ আমরা নই। সঙ্গে এও জানিয়ে রাখলেন, গাড়ির কিস্তি শোধ করতে হবে বলে এ বছর আর কোথাও ঘুরতে যাবেন না তাঁরা।

টেলিভিশনের জন্য নিয়মিত কাজ করছেন ভাবনা। বিশেষ করে বিশেষ দিবস ও উৎসবের সময়ে খণ্ড নাটক, ধারাবাহিক ও টেলিছবিতে অভিনয় করতে দেখা যায় এই অভিনেত্রীকে। মনের মতো চিত্রনাট্য পান না বলে অভিনয় করেন না চলচ্চিত্রে। এ প্রসঙ্গে ভাবনা বলেন, গত তিন মাসে তিনটি সিনেমার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিতে হয়েছে। যেসব ছবি পয়সা খরচ করে হলে গিয়ে নিজেই দেখব না, সেসব ছবিতে কেন অভিনয় করব?

মনের মতো সিনেমা পান না, আবার নাটকে কাজ করা নিয়েও নানা বিড়ম্বনা সহ্য করতে হয় তাঁকে। নাটকপাড়ার অনাকাঙ্ক্ষিত নানা ঘটনা নিয়ে কথা বলেন ভাবনা। তিনি বলেন, আমাকে পরিচালকেরা নিতে চায়, কিন্তু প্রযোজকেরা চায় না। কোনো কোনো পরিচালক এসে বলে, আপু আপনার জন্য একটা ক্যারেক্টার লিখেছি। পরে দেখা যায় প্রযোজক সেখানে বাগড়া দেন। অনেকে বলেও বসেন, তুমি তো অনিমেষের সঙ্গে প্রেম করো! আমাদের এখানেও কাজ পেতে হলে নারী শিল্পীদের কেবল কাজ জানলেই চলে না, প্রযোজকের সঙ্গে কফি খেতে যেতে হয়, হাহা-হিহি করতে হয়। আমি সেটা পারি না, পারবও না। মানুষ আসলে সিঙ্গেল নায়িকা পছন্দ করে। এখানে ভালো কাজও করতে হবে, সিঙ্গেলও হতে হবে, তেলও দিতে হবে। এত কাহিনির মধ্যেও প্রতিদিন কাজের অফার পাই।

ভাবনা বলেন, আমার সম্পর্কে একবার অভিযোগ উঠল আমি নাকি বেয়াদব। নাটকের প্রস্তাব দেওয়ায় স্ক্রিপ্ট পাঠাতে বলেছিলাম একজনকে। বলেছিলাম, স্ক্রিপ্ট পছন্দ হলেই কাজ করব। তিনি আমাকে বেয়াদব বানিয়ে দিয়েছেন। একে তো মানসম্মত কাজের অভাব, তার ওপর আবার এই সব যন্ত্রণা।

এত বাছবিচার করে কেন কাজ করতে হবে? ভাবনা বলেন, আমি শুধু টাকা রোজগারের জন্য কাজ করি না। কাজের প্রস্তাব, বিশেষ করে নাটকের, প্রতিদিনই পাই। কিন্তু সব কাজ কি আমার পক্ষে করা সম্ভব? আমি একটা সংগ্রামের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। অনেকে আমাকে বলে, বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকো, তোমার আবার কিসের সংগ্রাম? ইচ্ছে হলে কাজ করো, নয়তো করো না। আমি বলি, আমার হয়তো তিন বেলা খাওয়ার জন্য কাজ করতে হয় না। কিন্তু আমার সংগ্রামটা অন্য জায়গায়। আমি শিল্পী হতে চাই। আমি চাই আমাকে যথাযথভাবে কেউ ব্যবহার করুক। আমি সারা জীবন নাচ শিখেছি, কিন্তু আমাকে কোনো বড় অনুষ্ঠানে কেউ নাচ করতে দেখেছেন? নাচের ন জানে না, কোনো দিন শেখেনি, বড় বড় অনুষ্ঠানে তাদেরই নাচতে দেখবেন। এই যে একজন আর্টিস্টকে কেউ ঠিক জায়গায় কাজে লাগাতে পারছে না, এটা শিল্পীর জন্য একটা যন্ত্রণা। এই যন্ত্রণা বয়ে বেড়াতে হচ্ছে আমাকে। আমার ইন্ডাস্ট্রি আমাকে আলাদা করতে জানে না। অথচ ভারতে আর্টিস্ট হিসেবে অমিতাভ বচ্চন এবং ভিকি কৌশলকে একই রকম সম্মান করা হয়।

সম্প্রতি বঙ্গবন্ধুর জীবনীচিত্রের অভিনয়শিল্পীদের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ নিয়েও দুঃখের কথা বলেন ভাবনা। অডিশনে প্রশংসা পেয়েও প্রাথমিক শিল্পী তালিকায় জায়গা না পেয়ে কষ্ট পেয়েছেন তিনি। তরুণ রানুর চরিত্রে তাঁকে পছন্দ হওয়ায় পরিচালক শ্যাম বেনেগাল তাঁকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছিলেন, আমরা একসঙ্গে কাজ করব। এ প্রসঙ্গে ব্যথিত কণ্ঠে ভাবনা বলেন, জাতির জনকের বায়োপিক হচ্ছে, সেখানে যেকোনো একটা চরিত্রে কাজ করতে পারলেই আমি নিজেকে ধন্য মনে করতাম। পরিচালক আমাকে দেখে বলেছিলেন, মোটা হতেও হবে না, শুকাতেও হবে না। আমি নিশ্চিত ছিলাম চরিত্রটির জন্য তিনি আমাকে পছন্দ করেছিলেন। জানি না শেষ পর্যন্ত কেন আমাকে রাখা হলো না। প্রকাশিত তালিকাটি প্রাথমিক, পরে সুযোগ আসতে পারে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার আর সুযোগ আসার সম্ভাবনা নেই।

শিগগির নতুন একটি টেলিছবিতে কাজ শুরু করতে যাচ্ছেন ভাবনা। সম্মান নামের ওই টেলিছবিতে ভাবনার বিপরীতে দেখা যাবে শ্যামল মাওলাকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: