বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

‘বৈধপথে শ্রমবাজার বন্ধ হয়নি’



12. probasনিউজ ডেস্ক::
লিবিয়া সরকারের অবৈধ অভিবাসীবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ থেকে লোক নেওয়ার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তবে বৈধপথে লিবিয়ায় বাংলাদেশের শ্রমবাজার বন্ধ হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। রাজধানীর ইস্কাটনে প্রবাসী কল্যাণ ভবনে রবিবার দুপুরে নিজ কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা জানান তিনি।

গতকাল শনিবার লিবিয়ায় বাংলাদেশী শ্রমবাজার বন্ধ প্রসঙ্গে দেশটির সরকারের মুখপাত্রের বরাত দিয়ে সংবাদ মাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। লিবিয়া সরকারের মুখপাত্র হাতেম উরাইবি বলেন,‘বাংলাদেশীদের অনেকেই লিবিয়া থেকে অবৈধভাবে ইউরোপে যাওয়ার চেষ্টা করে। তারা (বাংলাদেশী) লিবিয়ার ফার্মে কাজ করতে আসে। পরে অবৈধভাবে ইউরোপে যায়। সরকারের অবৈধ অভিবাসীবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ থেকে লোক নেওয়ার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বলেন, যারা বৈধপথে লিবিয়ায় যাচ্ছে তাদের যাওয়া বন্ধ হয়নি। বরং যারা অবৈধপথে বিএমইটির (জনশক্তি রফতানী ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো) ছাড়পত্র ছাড়া যাচ্ছে তাদের লিবিয়া সরকার ঢুকতে দেবে না। সুতরাং লিবিয়ার শ্রমবাজার বন্ধ হয়নি। দুই সরকারের (বাংলাদেশ-লিবিয়া) মধ্যে জনশক্তি রফতানি ও আমদানি চালু আছে।

মানবপাচার প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে আমরা জনগণের জন্য মানবপাচার আইন করেছি। এ আইনের বাস্তবায়ন হলে খুব ভাল হতো। কিন্তু এখনও এ ব্যাপারে জনসচেতনতা তৈরি হয়নি। জনগণ এগিয়ে আসে না। তারা নিজেরা মামলা করতে আসে না।

ব্রিফিংকালে মন্ত্রণালয়ের সচিব খন্দকার ইফতেখার হায়দার, বিএমইটির ডিজি বেগম শামসুন নাহার উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: