শনিবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যু নিয়ে ভুল তথ্য ওয়ার্ল্ডমিটারে



 

বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে একজন মারা গেছেন বলে তথ্য দিয়েছে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের তথ্য সার্বক্ষণিক প্রদর্শন করা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডমিটার। তবে জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর) বলছে, এ তথ্য সম্পূর্ণ ভুল। ওয়ার্ল্ডমিটারে যে তরুণীর মৃত্যুর কথা বলা হচ্ছে, তিনি গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল সমস্যায় ভুগছিলেন। তার শরীরে জ্বর থাকলেও করোনাভাইরাসের পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছিল। পরে ওয়ার্ল্ডমিটারও তাদের পরিসংখ্যানে বাংলাদেশে একজনের মৃত্যুর তথ্যটি প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) রাতে আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যায়নি। এ পর্যন্ত বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন তিন জন। এখন সাত জন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে কেউ মারা যাননি।

ওয়ার্ল্ডমিটার কানাডা ফেরত এক তরুণীর মৃত্যুর তথ্য জানিয়েছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডা. ফ্লোরা বলেন, ওই তরুণী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না। তিনি কয়েকদিন আগে কানাডা থেকে দেশে ফিরেছিলেন। তার শরীরে জ্বর ছিল। সে কারণে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে তার পিসিআর পরীক্ষাও করানো হয়। তবে সে পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছিল। অর্থাৎ তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না।

এর আগে, ওয়ার্ল্ডমিটারের দেশভিত্তিক করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিসংখ্যানে বাংলাদেশে এই ভাইরাসে আক্রান্ত একজন মারা গেছেন বলে দেখানো হয়। সেখানে বলা হয়, বাংলাদেশে নতুন দুই জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে শনাক্ত করা হয়েছে এবং একজন মারা গেছেন। যিনি মারা গেছেন, তিনি একজন তরুণী। কয়েকদিন আগে তিনি করোনাভাইরাসের মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ায় কানাডা থেকে নিজ দেশে ফিরেছিলেন। পরে ওয়ার্ল্ডমিটারের সংশ্লিষ্ট পেজে বাংলাদেশের তথ্যটি হালনাগাদ করে নেয়। সেখানে এখন বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কোনো মৃত্যুর ঘটনা দেখাচ্ছে না।

কানাডা ফেরত ওই তরুণীর নাম নাজমা আমিন। তিনি কানাডার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা করতেন। ৯ মার্চ দেশে ফেরার পর তিনি পেটের পীড়ায় ভুগছিলেন। ১৩ মার্চ তাকে মোহাম্মদপুরের একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে তারা জানান, তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি করতে হবে এবং সেখানে সে সুবিধা নেই। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরদিন শনিবার সকালে সংশ্লিষ্টরা জানতে পারেন, তিনি কয়েকদিন আগেই কানাডা থেকে ফিরেছেন। ওই সময় তার জ্বরও ছিল। এ তথ্যে সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। তারা ধরেই নেন, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। মেয়েটির পরিবারের অভিযোগ, এসময় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে মেয়েটিকে কেউ চিকিৎসা দিতে রাজি হননি।

ওই সময় সার্জারী বিভাগের অধ্যাপক ডা. এ বি এম জামালও স্বীকার করে নেন, কানাডা ফেরত মেয়েটিকে নিয়ে সাময়িকভাবে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে জ্বর থাকায় আইইডিসিআরের সঙ্গে তাৎক্ষণিকভাবে যোগাযোগ করে তার রক্ত পরীক্ষা করা হয়। সেই পরীক্ষার ফলও নেগেটিভ এসেছিল।সূত্র : সারাবাংলা

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: