মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৮ বৈশাখ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

পয়েন্ট টেবিলে যোগ্য অবস্থানেই আছি: কোহলি



স্পোর্টস ডেস্ক:: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দ্বাদশ আসরে টানা পাঁচ পরাজয়ে পয়েন্ট টেবিলে সবার নিচে অবস্থান করছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। শেষ ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ২০৬ রানের লক্ষ্যও প্রতিরোধ করতে পারেননি ব্যাঙ্গালুরুর বোলাররা।

এমন বোলিংয়ে কখনই ম্যাচ জেতা সম্ভব নয়। আর সেই কারণে পয়েন্ট টেবিলে যোগ্য স্থানেই (শেষে) আছে তারা। কলকাতার বিপক্ষে ম্যাচ শেষে অসন্তুষ্টি নিয়ে এমনটা জানিয়েছেন অধিনায়ক ভিরাট কোহলি।

কলকাতার বিপক্ষে পরাজয়ের সম্পূর্ণ দায়ভার দলের বোলারদের দিয়েছেন তিনি। কোহলি, এবি ডি ভিলিয়ার্সের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ২০৬ রানের লক্ষ্য পেয়েছিল কলকাতা। শেষ ২৮ বলে ৬৮ রানের প্রয়োজন ছিল দলটির। কিন্তু ব্যাঙ্গালুরুর বোলারদের অদক্ষতায় পাঁচ বল হাতে রেখেই ম্যাচ ছিনিয়ে নেয় কলকাতা।

ব্যাঙ্গালুরুর অভিজ্ঞ বোলাররা এই রান প্রতিরোধ করতে না পারায় একদমই সন্তুষ্ট নন অধিনায়ক কোহলি। তাঁর দলের বোলাররা চাপের মুহূর্তে ধৈর্য ধরতে পারেনি বলে, অভিযোগ কোহলির,

‘চাপের মুহূর্তে আমরা ধৈর্য ধরতে পারিনি এবং আমরা যদি এমন বোলিং করি তাহলে টেবিলে যেখানে আছি এটাই আমাদের প্রাপ্য স্থান। এর পেছনে কোন রকেট সাইন্স নেই। আইপিএলের মতো পর্যায়ে যেমন ক্রিকেট খেলা প্রয়োজন আমরা সেটা খেলছি না।

‘আমরা যদি গুরুত্বপূর্ণ সময়ে সাহস না দেখাই, এভাবে বল করি তাহলে এটা জেতা সব সময়ই কঠিন যখন প্রতিপক্ষে রাসেলের মতো পাওয়ার হিটার থাকে,’ ম্যাচ শেষে বলেছেন তিনি।

কলকাতার বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান আন্দ্রে রাসেলের সামনে একেবারেই অসহায় ছিল ব্যাঙ্গালুরুর বোলাররা। ১৮তম ওভারে হাই নো’য়ে ছয় দিয়েছিলেন মোহাম্মদ সিরাজ এবং আম্পায়ারের নির্দেশে তাঁর বোলিং বাদ হলে মার্কাস স্টইনিসকে আরও তিনটি ছয় হাঁকান রাসেল।

সেই ওভারে আসে ২২ রান। কলকাতার শেষ ১২ বলে ৩০ রানের প্রয়োজন সহজ করে দেন টিম সাউদি। রাসেলের বিপক্ষে সেই ওভারেই ২৯ রান দেন তিনি। এরপর পাঁচ বল বাকি থাকতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে কলকাতা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: