রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «  

পৃথিবীর চেয়েও বেশি বসবাস উপযোগী পরিবেশ এক্সোপ্ল্যানেটে!



তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক:: পৃথিবীতে প্রাণ থাকার পেছনে অন্যতম কারণ হলো তরল পানির উপস্থিতি। আর এক্সোপ্ল্যানেটেও পানি থাকতে পারে। যা বসবাসের জন্য উপযুক্ত হতে পারে। সম্প্রতি একটি গবেষণায় এ ধরণের তথ্য উঠে এসেছে।

প্রসঙ্গত, আমাদের পৃথিবী একটি প্ল্যানেট বা গ্রহ। এই গ্রহসহ আমাদের সৌরজগতের আরও ৮টি (মতান্তরে আরও ১০টি) গ্রহ একটি নক্ষত্রকে কেন্দ্র করে ঘুরছে। আর সেই নক্ষত্র হল সূর্য। এই মহাবিশ্বে সূর্যের চেয়েও শক্তিশালী বা দুর্বল অসংখ্যা নক্ষত্র রয়েছে। আর তাদেরকে কেন্দ্র করে ঘুরছে আরো অনেক গ্রহ। সেইসকল গ্রহ বা প্ল্যানেটই হল এক্সোপ্ল্যানেট। মূলকথা আমাদের সৌরজগতের বাইরের সকল প্ল্যানেটই এক্সোপ্ল্যানেট।

গবেষণার তথ্যে বলা হয়েছে, এক্সোপ্ল্যানেটে জীবন ধারণের জন্য অনেক ভালো পরিবেশ থাকতে পারে। যা আমাদের কল্পনার চেয়েও ভালো কিছু হতে পারে। বিজ্ঞানীরা আমাদের সৌরজগতের বাইরের গ্রহের সমুদ্রের সঞ্চালন এবং বিভিন্ন ধরনের জলবায়ু অবস্থা জানার জন্য সফটওয়্যারটি রোক -৩ (থ্রি) ডি ব্যবহার করেন।

পৃথিবীতে জীবন একটি ঊর্ধ্বমুখী প্রবাহ বা উচ্ছ্বাসের উপর নির্ভর করে। যা অন্ধকার থেকে তৈরি হয়ে আলোকজ্জ্বল অংশগুলো থেকে পুষ্টি সঞ্চার করে, যেখানে আলোকসংশোধনমূলক জীবন সমৃদ্ধ হয়। গবেষকরা বলছেন, মূলত সূর্যের আলো থেকেই পুষ্টির পুনর্নির্মাণ হয় এবং জৈবিক ক্রিয়াকলাপ সম্পাদিত হয়।

তাই গবেষকদল সফটওয়্যার ব্যবহার করে গ্রহ ও এক্সোপ্ল্যানেটগুলো ঘেটে দেখার চেষ্টা করেছেন কোন গ্রহ বা এক্সোপ্ল্যানেট জীবের বসবাসের জন্য অতিথিপরায়ণ।

শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান গবেষক স্টেফানি ওলসন বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বার্সেলোনায় গোল্ডস্মিড্ট জিওকেমিস্ট্রি সম্মেলনে এই গবেষণা থেকে প্রাপ্ত ফলাফল উপস্থাপনের সময় বলেন, পৃথিবী সর্বোত্তম বাসযোগ্য গ্রহ হতে পারে না। সোলার প্যানেলের বাইরে অন্য কোথাও এমন পরিবেশ থাকতে পারে যা আমাদের নিজ গ্রহের চেয়েও বেশি অতিথিপরায়ণ।

ওলসন বলেন, এটা একটি আশ্চর্যজনক সিদ্ধান্ত। এটি আমাদের দেখায় যে অনুকূল সমুদ্রের সংবহন নিদর্শনগুলির সাথে কিছু এক্সপ্লেনেটসের শর্তগুলি জীবনকে সমর্থন করার জন্য আরও উপযুক্ত হতে পারে, যা পৃথিবীর জীবনের চেয়ে বেশি প্রচুর বা সক্রিয়।

নাসা বলেছে, আমাদের নিজস্ব সৌরজগতে অন্য কোথাও জীবন সন্ধান করার সর্বোত্তম সুযোগ ‘বৃহস্পতির চাঁদ ইউরোপা’ এবং ‘শনির চাঁদ এনসেলেডাস’। এ অঞ্চলের অভ্যন্তর এক্সোপ্ল্যানেট সন্ধানের সাথে জড়িত। এগুলো পৃষ্ঠের তাপমাত্রার জন্য ঠিক দূরত্বে রয়েছে যা পৃষ্ঠের তরল জলকে সমর্থন করতে পারে।

নাসা মহাবিশ্বে জীবন অনুসন্ধানের জন্য তথাকথিত বাসযোগ্য গ্রহগুলোর ওপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করছে, যেগুলোতে পৃথিবীর মতো তরল জল বা মহাসাগরের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে অবশ্যই সমস্ত মহাসাগর সমানভাবে অতিথিপরায়ণ হবে না। কিছু মহাসাগর অন্যদের চেয়ে ভালো থাকার জায়গা হতে পারে, যোগ করেন ওলসন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: