সোমবার, ৬ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী কন্তে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুজেপে কন্তে। নিজের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনির সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে তিনি এ ঘোষণা দেন। জোটের শরিক ন্যাশনালিস্ট লিগ পার্টির নেতা মাত্তেও সালভিনির তীব্র সমালোচনা করেছেন কন্তে।

সালভিনি তার ক্ষমতাসীন কোয়ালিশনকে ডুবাতে বসেছেন এবং ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে অর্থনীতিকে বিপদের দিকে ঠেলে দিচ্ছেন বলে কন্তে অভিযোগ করেছেন। ‘ব্যক্তিগত ও দলীয় স্বার্থের জন্য দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে ইতালিতে নতুন রাজনৈতিক সঙ্কট তৈরির জন্যও সালভিনিকে দুষেছেন কন্তে।

বিবিসি জানায়, সালভিনি প্রধানমন্ত্রী কন্তের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব উত্থাপন করেছিলেন। তাছাড়া, তিনি তার জোটের অংশীদার ‘ফাইভ স্টার’ এর সঙ্গেও আর কাজ করতে পারবেন না বলে জানান। মাত্র ১৪ মাস আগেই লিগ আর ফাইভ স্টার মুভমেন্ট মিলে স্বতন্ত্র প্রধানমন্ত্রী হিসাবে কন্তের নেতৃত্বে দেশ পরিচালনার জন্য একটি কোয়ালিশন সরকার গঠন করেছিল।

মঙ্গলবার সিনেটে এক ভাষণে কন্তে বলেন, মে মাসে ইউরোপীয় নির্বাচনে তার দলের সাফল্যের পর থেকে তারই ডেপুটি এবং লিগ নেতা সালভিনি ‘নির্বাচনে ফেরার অজুহাত খুঁজছিলেন।

১২ দিন আগেই সালভিনি কোয়ালিশন সরকারকে অকর্মণ্য ঘোষণা করে আগাম নির্বাচন ডাকেন। তার এমন পদক্ষেপকে বেপরোয়া এবং দেশকে রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা এবং অর্থনৈতিক অস্থিতিশীলতার দিকে ঠেলে দেওয়ার সামিল বলে কন্তে অভিযোগ করেন।

কোয়ালিশন সরকারের দুটো দলের কোনোটিরই সদস্য নন কন্তে। সালভিনির পদক্ষেপে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি মঙ্গলবার দিনশেষেই পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার ঘোষণা দেন।

ফলে ইতালির প্রেসিডেন্টকে এখন নতুন সরকার গঠনের জন্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক আলোচনা শুরু করতে হবে। আর এতে ব্যর্থ হলে প্রেসিডেন্টকে পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে নির্বাচনের নির্ধারিত সময়ের অনেক আগেই নতুন নির্বাচন ডাকতে হবে।

তবে ফাইভ স্টার মুভমেন্ট বিরোধী মধ্য-বাম দল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (পিডি) সঙ্গে জোট গড়ার চেষ্টা নিতে পারে। সেক্ষেত্রে ইতালিতে আগাম নির্বাচন এড়ানো সম্ভব হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: