রবিবার, ৩১ মে ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: প্রায় দুই মাস ধরে চলমান গণবিক্ষোভে চার শতাধিক মানুষের প্রাণহানির পর অবশেষে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন ইরাকের প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল-মাহদি। শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) এক লিখিত বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেন ইরাকি প্রধানমন্ত্রী। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম থেকে এ তথ্য জানা যায়।

এর আগে এদিন জুমার নামাজকালে দেশটির জ্যেষ্ঠ শিয়া নেতা আয়াতোল্লাহ আলী আল সিস্তানি গণবিক্ষোভ নিরসনে সংসদ সদস্যদের ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অনাস্থা প্রস্তাব আনার কথা পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানান। এর আগেও তিনি এ আহ্বান জানান। ধর্মীয় নেতার ওই ইচ্ছা প্রকাশের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আদেল আব্দুল-মাহদি পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

বিবৃতিতে ইরাকি প্রধানমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে যাওয়া তরান্বিত করতে যতো দ্রুত সম্ভব আমি সংসদকে আমার পদত্যাগপত্র গ্রহণের অনুরোধ জানাবো। কবে নাগাদ আদেল আব্দুল-মাহদি পদত্যাগ করবেন, বিবৃতিতে তার উল্লেখ নেই। তবে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্য আগামী রোববার জরুরি ভিত্তিতে সংসদ বসবে বলে জানা গেছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের এ ঘোষণাকে নাচ-গান ও উল্লাসের মাধ্যমে স্বাগত জানিয়েছে বিক্ষোভকারীরা। তারা এটিকে বিক্ষোভকালে শহীদদের ও গণমানুষের বিজয় বলে অভিহিত করে।

চলতি বছরের ১ অক্টোবর কর্মসংস্থানের সুযোগ, দুর্নীতির অবসান ও উন্নত সেবার দাবিতে ইরাকে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষোভে এ পর্যন্ত চার শতাধিক নিহত ও প্রায় ১৫ হাজার মানুষ আহত হয়েছেন। প্রথম দিকে শান্তিপূর্ণ থাকলেও পরবর্তীকালে ব্যাপক সহিংস হয়ে ওঠে এ বিক্ষোভ। এরই সূত্রে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভকারী ও সরকারি বাহিনীর মধ্যে একের পর এক সংঘর্ষ হতে থাকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: