শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

নিজের বক্তব্য বিশ্লেষণ করলেন প্রধান বিচারপতি



21. SK sinhaনিউজ ডেস্ক::
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, আমি ইচ্ছা করে কাউকে আঘাত দিতে চাইনি। আমি যা বলতে চাই তাহলো বিচার বিভাগ হচ্ছে রাষ্ট্রের একটা অঙ্গ। আমরা চাই তাদের (নির্বাহী বিভাগ) সঙ্গে সহযোগিতার মাধ্যমে সামঞ্জস্য রেখে চলতে।

বাংলাদেশ মহিলা জজ অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে প্রধান বিচারপতিকে দেওয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে তিনি বলেন, যখন একেবারেই অসম্ভব হয়ে যায়, সহ্যের সীমা চলে যায়, তখন একজনকে তো বলতেই হবে। অনেক বিচারক মুখ বুঝে সহ্য করে যাচ্ছেন, তাদের বুক ফেটে যাচ্ছে কিন্তু কথা বলতে পারছেন না।

তিনি বলেন, আমরা বিচারকরা ট্রেড ইউনিয়নের মতো দাবি-দাওয়া নিয়ে হাজির হবো না। আমি ইচ্ছে করে কাউকে আঘাত দিতে চাইনি। আমি যা বলি সেটা হলো, বিচার বিভাগ একটা রাষ্ট্রের একটা অঙ্গ। এসময় বাংলাদেশের বিচার বিভাগ আধুনিক প্রযুক্তিতে পিছিয়ে থাকায় মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি হচ্ছে না বলে উল্লেখ করেন তিনি এবং আইনমন্ত্রীকে আধুনিক প্রযুক্তিতে বিচার বিভাগের উন্নয়ন করার জন্য আহ্বান জানান।

আইনমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে প্রধান বিচারপতি বলেন, আমরা নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে যাই। আমরা ব্যক্তিগতভাবে কাউকে আঘাত করার জন্য কিছু বলি নাই। যা বলি তা বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, মান-মর্যাদা রক্ষার্থে কিছু ন্যায্য দাবি।

উদাহরণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, অপরাধ করলে পুলিশ প্রশাসন অপরাধের তদন্ত করে। তার বিচার করা বিচার বিভাগের কাজ। চাইলে অপরাধীকে আজীবন জেলে রাখা যায় না। বিচার বিভাগ রায় দিলে সেটা কার্যকর করে নির্বাহী বিভাগ। একটার সঙ্গে অন্যটা অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত। আমি এটাই বিভিন্ন বক্তব্যে তুলে ধরেছি।

আইনমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, জনপ্রশাসনে সব অফিসারের ডাটা আছে। যেটা বিচার বিভাগে নেই। সুপ্রিমকোর্টে আপডেট করছি। তবে আপনাদের প্রস্তাব ছাড়া এটা কার্যকর হবে না। মামলা নিষ্পত্তির জন্য কোনও অ্যাডিশনাল জজের পদ খালি রাখা যাবে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১৬ মে মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ এর আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আমাদের খুবই কষ্ট হয়, আইনজীবীর ত্রুটির জন্য শতকরা ৬০ থেকে ৭০ ভাগ মামলায় বিচারপ্রার্থীরা হারে। এর পরেরদিনই আইজীবী সমিতি এক সংবাদ সম্মেলনে এ বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ‘প্রধান বিচারপতির এ বক্তব্যের বিষয়ে আমরা, দেশের সব আইনজীবী, সবিনয় প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা আইনজীবীরা সব সময় চেষ্টা করি মানুষ যাতে ন্যায়বিচার পায়’।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: