সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

নিউইয়র্কে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি যুবক নিহত



প্রবাস ডেস্ক:: নিউইয়র্ক সিটির কুইন্সে ওজনপার্ক এলাকায় ৪ অগাস্ট ভোরে এক সড়ক দুর্ঘটনায় ২৩ বছর বয়সী বাংলাদেশি সাদমান সাকিবের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।

উডহ্যাভেন এলাকার বাসিন্দা সাকিব আমাজন ডটকমের পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার সময় ভোর রাত ৩টা ৫৭ মিনিটে সাউথ কন্ডুইট এভিনিউতে দুর্ঘটনার শিকার হন। দুর্ঘটনার সংবাদ পেয়েই টহল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখেন যে,সাকিবের হুন্ডা এ্যাকোর্ড-২০০৮ গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে গেছে। রাস্তায় পড়ে রয়েছে সাকিবের নিথর দেহ। পুলিশের সঙ্গে আসা এ্যাম্বুলেন্সের প্যারামেডিক্সরা প্রাথমিক পর্যবেক্ষণেই পুলিশকে জানায় যে, সাকিব বেঁচে নেই।

১০৬ প্রেসিঙ্কটের পুলিশ অফিসার এবং নিউইয়র্ক পুলিশের দুর্ঘটনা-তদন্ত কর্মকর্তারা জানান, সাকিবের গাড়িটি এতটাই দ্রুতগামী ছিল যে, নিয়ন্ত্রণ হারানোর পর রাস্তার পার্শ্ববর্তী একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে মুহূর্তেই তা দ্বিখণ্ডিত হয়েছে। ছিন্নভিন্ন হয়েছে গাড়ির পার্টসগুলো। লিন্ডেন বুলেভার্ডের এক্সিটে সংঘটিত এই দুর্ঘটনার পর সাকিবের লাশ নিকটস্থ ফিউনারেল হোমে নেওয়ার পর তার স্বজনকে সংবাদটি জানানো হয়েছে। তার বাবার নাম ডা. মঈনউদ্দিন। ঢাকায় জন্ম সাকিবের গ্রামের বাড়ি ছিল ফেনীতে। সাকিব ছিলেন নিউইয়র্ক সিটিতে লাগোয়ার্ডিয়া কমিউনিটি কলেজের কম্পিউটার সায়েন্সের ছাত্র এবং ইতিমধ্যেই এসোসিয়েটস করেছিলেন। ফুলটাইম স্টুডেন্ট হলেও পার্টটাইম কাজ করছিলেন আমাজন ডটকমে। পুলিশ জানায়, এ দুর্ঘটনায় আর কেউ হতাহত হয়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: