মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «  

দুই বছরের সন্তানকে গলা কেটে খুন করল মা



নিউজ ডেস্ক:: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় শামীমা খাতুন (৩৫) নামে এক মা ২ বছরের সন্তানকে বঁটি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছেন। ঘাতক শামীমা মানসিক ভারসাম্যহীন বলে জানা গেছে। সোমবার ভোরে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। শামীমা উপজেলার সনাতনপুর গ্রামের গ্রাম্য ডাক্তার মামুন অর রশিদের স্ত্রী।

জানা গেছে, গ্রাম্য ডাক্তার মামুন অর রশিদের স্ত্রী শামীমা খাতুন (৩৫) মানসিক ভারসাম্যহীন। তাদের ৩টি সন্তান রয়েছে। ছোট সন্তান স্নেহা। বয়স মাত্র ২ বছর। সোমবার ভোরে শামীমা খাতুন তার ঘুমন্ত মেয়েকে ডেকে তুলে দোতলায় সিঁড়ি ঘরের পাশে রান্নাঘরে নিয়ে যায়। সেখানে বঁটি দিয়ে তার গলা কেটে হত্যা করে।

শামীমার স্বামীর দাবি, শামীমা মানসিক রোগী। এর আগেও সে এমন ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করেছিল। আলমডাঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুন্সী আসাদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘাতক শামীমাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: