বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

দক্ষিণ আফ্রিকায় মসজিদে যাওয়ার পথে গুলিতে বাংলাদেশির মৃত্যু



প্রবাস ডেস্ক:: দক্ষিণ আফ্রিকায় জোহানসবার্গ প্রভিন্সের রেন্ডবার্গের কসমোসিটিতে ডাকাতের গুলিতে আনোয়ার খান নামে এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) রাত ৮ টার দিকে এশার নামাজ পড়তে মসজিদে যাওয়ার সময় আরেক বাংলাদেশির দোকানের সামনে সন্ত্রাসীদের কবলে পড়লে আনোয়ার খানের পেটের বাম পাশে গুলি লাগে।

তাকে দ্রুত জোহানসবার্গের হেলেন জোসেফ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইবার তার শরীরে অস্ত্রোপচার করা হলেও রবিবার (১৩ অক্টোবর) রাত ২ টার দিকে আইসিইউতে থাকা কালীন তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

নিহত আনোয়ার খান চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার কালিয়াইশ ইউনিয়নের রসুলাবাদ গ্রামের বাসিন্দা। তার দুই ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে। গত ডিসেম্বরে দেশে গিয়ে দীর্ঘ ৯মাস পর ২২ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরেছিলেন তিনি। আজ (২১ দিন) এক মাসের মধ্যে তাকে আবারো ফিরতে হচ্ছে লাশ হয়ে।

নিহত আনোয়ারের বন্ধু প্রবাসী আব্দুল মান্নান জানান, আনোয়ার খান অনেক অমায়িক একজন মানুষ ছিলেন।তার কোনো শত্রু থাকার কথা নয়। তিনি বলেন, কসমোসিটিতে বাংলাদেশি মসজিদে প্রতি বৃহস্পতিবার রাতে জিকির-আজগার করা হয়। সেখানে আনোয়ার সবাইকে নিয়মিত অংশগ্রহণ করাতেন।

ঘটনার দিন তিনি এক পাকিস্তানিকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশি আবু বকরের দোকানে যান। আবু বকরকে মসজিদে নিয়ে যাওয়ার জন্য গাড়ি থেকে নেমে ডাকতে যায়; এ সময় সেখানে অবস্থানরত ডাকাতরা তাদেরকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে; আনোয়ারের গায়ে তিনটি গুলি লাগে। পাকিস্তানিকে উদ্দেশ্য করে গুলি করলে তা লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

ধারণা করা হচ্ছে, সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ওই বাংলাদেশি দোকানের সামনে ডাকাতির উদ্দেশ্যে অবস্থান করছিলো। দোকান বন্ধ করার সময় তারা ডাকাতির চেষ্টা করবে। এমন সময় আনোয়ার খান সেখানে গেলে ডাকাতরা মনে করে দোকানদার হয়তো তাদেরকে ডেকে এনেছে। অনেকটা ভয় থেকেই ডাকাতরা তাদের ওপর গুলি ছোড়ে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: