শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক ইজিএনের নতুন সভাপতি, অনুরূপ সম্পাদক  » «   ফিনল্যান্ডে ভাষা শহীদ দিবস পালন  » «   ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মোবাইলে পর্নো ভিডিও!  » «   বর্ণাঢ্য আয়োজনে ভেরনো’র প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন  » «   স্টকহোম বাংলাদেশ দূতাবাসে ‘গণহত্যা দিবস-২০২১’ পালিত  » «   নিকাব ছেড়ে পশ্চিমা পোশাকে ব্রিটেন ফেরার লড়াইয়ে শামীমা(ভিডিও)  » «   হারুন আর রশিদের জীবন বাঁচাতে এগিয়ে আসুন  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক তৃতীয়বারের মত ইজিএন সচিব নির্বাচিত  » «   মাহমুদ-উস সামাদ চৌধুরী`র মৃত্যুতে বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফিনল্যান্ডের শোক  » «   সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «  

ডোপ টেস্ট করে নতুন শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে: শাবি উপাচার্য



নিউজ ডেস্ক:: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, মাদকের বিষয় বিশ্ববিদ্যালয় সব সময় সতর্ক অবস্থায় রয়েছে। আগামী ১২ নভেম্বর থেকে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ভর্তি করানো হবে। শিক্ষার্থীরা মাদকাসক্ত কিনা তা জানার জন্য এই প্রথম ভতির্র সময় ডোপ টেস্ট করা হবে। ডোপ টেস্টের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ে নতুন ভর্তি হওয়া মাদকাসক্ত শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরি করা হবে। তাদেরকে ভর্তির সুযোগ দেওয়া হবে, ভর্তি থেকে বাদ দেওয়া হবে না। তবে, তাদেরকে সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রাখা হবে।

সোমবার (৪ নভেম্বর) বিকেল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সম্মেলন কক্ষে ত্রিদেশীয় সোস্যাল ইয়ুথ লিডারশীপ প্রোগ্রাম ‘ল্যাম্প’ (LAMP) এর জন্য নিবার্চিত শিক্ষার্থী নাদিয়া বেগম ইমাকে মনোনয়নপত্র তুলে দেওয়ার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, নতুন কোন শিক্ষার্থীর মাদকাসক্তের বিষয়টি শনাক্ত হলে তার অভিভাবককে জানানো হবে। তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে কাউন্সিলিং ও অন্যান্য সহযোগিতা করা হবে। এছাড়া খুব দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল ও বিভাগগুলোতে হঠাৎ করে সন্দেহজনক শিক্ষার্থীদের ডোপ টেস্ট করা হবে। আমরা চাই বিশ্ববিদ্যালয় শতভাগ মাদক মুক্ত থাকুক। মাদকের বিষয়ে শাবিপ্রবি সব সময় জিরো টলারেন্স অবস্থানে রয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক অধ্যাপক ড. রাশেদ তালুকদার, সেন্টার অব এক্সিলেন্সের পরিচালক অধ্যাপক ড. আখতারুল ইসলাম, প্রক্টর অধ্যাপক জহীর উদ্দিন আহমেদ, নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আ ফ ম জাকারিয়া, লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সামিউল ইসলাম প্রমুখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: