শুক্রবার, ৩ জুলাই ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «   সিঙ্গাপুরে আরও ১০ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত  » «   মিশিগানের হাসপাতালে আর রোগী রাখার জায়গা নেই  » «   ৩ হাসপাতাল ঘুরে চিকিৎসা না পেয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু  » «  

ছাত্রাবাসে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, রংপুর মেডিক্যাল কলেজ বন্ধ



Rangpur131429088426নিউজ ডেস্ক::
আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রংপুর মেডিক্যাল কলেজের ডা. মুক্তা ছাত্রাবাসে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে সংগঠনের কলেজ শাখার সভাপতি শহীদুজ্জামান শহীদসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে তিন ছাত্রলীগ নেতাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সম্ভাব্য সংঘর্ষের আশঙ্কায় কলেজ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে ছাত্রছাত্রীদের বেলা ৩টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়।

কলেজ সূত্র জানায়, রংপুর মেডিক্যাল কলেজে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের সরোয়ার গ্রুপের সঙ্গে কলেজ শাখার সভাপতি শহীদুজ্জামান শহীদ গ্রুপের মধ্যে মঙ্গলবার দফায় দফায় হাতাহাতি হয়। এরই জের ধরে বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ডা. মুক্তা ছাত্রাবাসে সরোয়ার গ্রুপ হামলা চালায়। এতে সংঘর্ষ বেধে যায় এবং ছাত্রলীগের সভাপতি শহীদসহ ১০ জন আহত হয়।

এ ঘটনার পর কলেজের একাডেমিক কাউন্সিল জরুরি সভা করেন। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অনির্দিষ্টকালের জন্য কলেজ বন্ধ ঘোষণা করে ছাত্রছাত্রীদের বেলা ৩টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়।

এদিকে শিক্ষার্থীরা জানান, আকস্মিক হল ত্যাগের নির্দেশ আসায় চরম বিড়ম্বনায় পড়েছেন তারা। এ ঘটনায় তারা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. জাকির হোসেন ও উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক আবু তালেবের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য কলেজে গেলে তাদের কাউকেই পাওয়া যায়নি।
কোতোয়ালি থানার ওসি জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: