শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সংবাদ ২১ ডটকম সম্পাদক আন্তর্জাতিক `এইজে´র কমিটি সদস্য নির্বাচিত  » «   ফিনল্যান্ডে মহান ভাষা শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  » «   দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «  

ক্যাসিনো কেলেঙ্কারি: ফেঁসে যাচ্ছেন ২ এমপি



নিউজ ডেস্ক:: বিতর্কিত অর্ধশতাধিক ব্যক্তির অবৈধ সম্পদ অনুসন্ধানে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এই তালিকায় নাম রয়েছে সরকারি দলের দুই এমপিরও। তারা হচ্ছেন- জাতীয় সংসদের হুইপ ও চট্টগ্রাম-১২ আসনের শামসুল হক চৌধুরী এবং ভোলা-৩ আসনের নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন। এরই মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক শাওন, তার স্ত্রী, বাবা, মা ও তার স্বার্থ সংশ্নিষ্ট সবার ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে। দুই এমপি ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে কতটুকু জড়িত, এই ব্যবসায় তাদের হাত আছে কি-না, কিংবা এক্ষেত্রে তারা পৃষ্ঠপোষকতা করছেন কি-না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এদিকে অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসা করে বিদেশে অর্থ পাচারের সঙ্গে জড়িত ৪৩ জনের তালিকা এরই মধ্যে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী এলিট ফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব) ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) থেকে পেয়েছে কমিশন। অনুসন্ধানের স্বার্থে কমিশন এই তালিকার অধিকাংশ নাম গোপন রেখেছে।

দুদকের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে জানান, ক্যাসিনো ব্যবসা করে অবৈধ সম্পদ অর্জনকারীরা কোন দল করেন বা কোন মতবাদে বিশ্বাসী- এটি তাদের কাছে মুখ্য নয়। এ ক্ষেত্রে তারা দেখছেন তাদের তফসিলভুক্ত অপরাধ। বিতর্কিত ক্যাসিনো ব্যবসার পাশাপাশি যারা টেন্ডারবাজি করে অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন তাদেরও ধরা হবে। যদি কোনো সরকারি কর্মকর্তা জড়িত থাকেন, তাদেরও বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না।

দুদকের অনুসন্ধান টিমের সদস্যরা অভিযুক্ত ক্যাসিনো ব্যবসায়ী ও অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনকারীদের বিরুদ্ধে আলাদাভাবে অনুসন্ধান করছেন। আগামী কিছু দিনের মধ্যে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হবে। পরে তাদের কাছে সম্পদের হিসাব চাওয়া হবে। যারা জেলে আছেন তাদের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করা হতে পারে। দুদকের এই তালিকা থেকে ২০ জনের নাম জানা গেছে। তাদের মধ্যে দুই এমপির নাম উল্লেখযোগ্য।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: