শুক্রবার, ৭ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «  

করোনায় স্পেনে তরুণ ফুটবল কোচের মৃত্যু



যে বয়সে ফুটবল পায়ে সবুজ ঘাসে দৌড়ানোর কথা ছিল ফ্রান্সিসকো গার্সিয়ার, সে বয়সে তিনি বেছে নিলেন প্রশিক্ষকের চাকরি। অর্থ্যাৎ, ক্যারিয়ারটাই শুরু করেছেন তিনি ফুটবল কোচ হিসেবে। কিন্তু কে জানতো, ক্যারিয়ারটা প্রস্ফুটিত হওয়ার আগেই ঝরে যাবে!

প্রাণঘাতি করোনভাইরাসে আক্রান্ত হয়েই না ফেরার দেশে চলে গেছেন স্পেনের মাত্র ২১ বছর বয়সী ফুটবল কোচ ফ্রান্সিসকো গার্সিয়া। বিশ্বব্যাপি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতদের মধ্যে অন্যতম কম বয়সী হিসেবে মৃত্যুবরণ করেছেন তিনি।

শুধু করোনাভাইরাসই নয়, মারাত্মক লিউকোমিয়ায়ও আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর হাসাপাতালে নিলে উচ্চতর পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর ডাক্তাররা নিশ্চিত হন, তিনি লিউকোমিয়ায়ও আক্রান্ত।

গার্সিয়া ২০১৬ সাল থেকেই কাজ করতেন মালাগাভিত্তিক ক্লাব অ্যাটলেটিকো পোর্টাডা আল্টার সঙ্গে। অর্থ্যাৎ, ১৭ বছর বয়স থেকেই কোচিংয়ের সঙ্গে যুক্ত গার্সিয়া। ক্লাবটির জুনিয়র দল পরিচালনা করতেন তিনি।

স্পেনে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে ৩০০রও বেশি ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছেন। মালাগা অঞ্চলে মৃতদের মধ্যে গার্সিয়া হলেন ৫ম ব্যক্তি। কিন্তু যখন ৭০ কিংবা ৮০ বছর বয়সী বৃদ্ধরা এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বেশি মৃত্যুবরণ করছে, সেখানে মাত্র ২১ বছর বয়সী গার্সিয়াও ঢলে পড়লেন মৃত্যুর কোলে!

বয়স কম হওয়ার কারণে, সবাই ধরে নিয়েছিল করোনার সঙ্গে লড়াই করে টিকে যাবেন গার্সিয়া। কিন্তু হাসাপাতালে আনার পর দেখা গেলো তিনি লিউকোমিয়ায়ও আক্রান্ত। এরপর ডাক্তাররা অনেক চেষ্টার পরও রক্ষা করতে পারলেন না তার জীবন। ডাক্তারদের দাবি, লিউকোমিয়ায় আক্রান্ত না হলে হয়তো বেঁচে যেতেন গার্সিয়া।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: