সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
দেশে চীনের ভ্যাকসিন ট্রায়ালের অনুমতি দিয়েছে সরকার  » «   অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «  

অযোধ্যা রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করছে মুসলিমরা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ভারতে বিতর্কিত অযোধ্যা মামলার রায় পুনর্বিবেচনার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড এবং জমিয়ত উলেমা-ই-হিন্দ। রোববার লক্ষ্নৌয়ে বোর্ডের বৈঠক এবং দিল্লিতে অনুষ্ঠিত জমিয়তের কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি অযোধ্যা রায়ে বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমিতে রামমন্দির নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছে শীর্ষ আদালত। অন্যদিকে নতুন মসজিদ নির্মাণের জন্য মামলার অন্যপক্ষ সুন্নি কেন্দ্রীয় ওয়াকফ বোর্ডকে অন্যত্র ৫ একর জমি দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত।

ওই রায়ে ভারতের সংখ্যাগরিষ্ঠ হিন্দুরা খুশি হলেও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছিলেন মুসলিম নেতারা। যদিও এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা তখন কোনো বিক্ষোভ দেখায়নি। তবে এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছিলেন মুসলিম নেতারা। সেই ঘোষণা মোতাবেক এবার আপিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড এবং জমিয়ত উলেমা-ই-হিন্দ সংগঠনের নেতারা। তবে এই আপিলে যে কোনো কাজ হবে না এটা তারা স্পষ্টই জানেন।

এ সম্পর্কে রোববার বৈঠকের পর জামাত উলেমা-ই-হিন্দের তরফে মৌলানা আরশাদ মাদানি বলেন, ‘আমরা জানি পুনর্বিবেচনার আবেদন একশ ভাগই খারিজ হয়ে যাবে। তারপরও আমরা রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন জানাব ৷ এটা আমাদের অধিকার ৷’

এসময় তারা অভিযোগ করে বলেন, ভারতের সর্বোচ্চ আদালতের কাছ থেকে তারা ন্যায়বিচার পাননি। কেননা বাবরি মসজিদের জমির বদলে তাদের অন্য জমি দেওয়ার কথা বলা হয়েছে ওই রায়ে। আর হিন্দুদের মসজিদের স্থলে মন্দির বানানোর অনুমতি দিয়েছে আদালত। সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের ওই রায় ঘোষিত হওয়ার পর ইতিমধ্যে মন্দির নির্মাণের প্রস্তুতিও শুরু করেছেন অযোধ্যার হিন্দুরা।

রোববারে বৈঠকে ল বোর্ডের সম্পাদক জাফরিয়াব জিলানি বলেন, ‘মসজিদের জমি আল্লার। শরিয়ত মোতাবেক ওই জমি অন্যকে দেওয়া যায় না। মসজিদের জমির বদলে কিছু নেওয়াও যায় না।’ জমিয়তের হয়ে অযোধ্যা মামলার আবেদনকারী ছিলেন এম সিদ্দিক। রায়ের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘অযোধ্যা রায় তথ্যপ্রমাণ এবং যুক্তির উপরে প্রতিষ্ঠিত নয়।’

অন্যদিকে ল বোর্ডও বলেছে, ‘বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনাকে ১৯৯৪ সালে সুপ্রিম কোর্ট জাতীয় লজ্জা বলে উল্লেখ করেছিল। মসজিদের জন্য বিকল্প জমি দিয়ে সেই লজ্জা ঢাকা যাবে না। বর্তমান রায়েও বাবরি ধ্বংসের নিন্দাই করা হয়েছে।’ তবে মুসলিম নেতাদের এই সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ চরমপন্ধী ‍হিন্দু সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ। মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের প্রতি এই সংগঠনের নেতাদের পরামর্শ, ‘ভারতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির স্বার্থে রিভিউ না চাওয়া উচিত নয় বোর্ডের।’

সূত্র: আনন্দবাজার

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: