মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
বড়লেখায় জাকির হোসেন শিক্ষা ও সেবা ফাউন্ডেশনের পরীক্ষা উপকরণ বিতরণ  » «   ইসির নতুন উদ্যোগ : যেসব অফিসে মিলবে হারানো পরিচয়পত্র  » «   ঢাবিকে কলঙ্কমুক্ত করতে ভিসির পদত্যাগ দাবী সাবেক ছাত্রদল অর্গানাইজেশন ইউরোপের  » «   অপহরণকারীর সাথে প্রেম, অতঃপর…  » «   শাহবাগে শিক্ষার্থী-পুলিশ সংঘর্ষ, সময় বাড়ল প্রতিবেদন দাখিলের  » «   পোগবা ব্রিটিশদের ‘বিদ্রুপ’ করলেন !  » «   ওয়ানডে সিরিজের আগে টাইগারদের জন্য বড় সুসংবাদ!  » «   যে কারণে রাতে কাজ করবেন না!  » «   দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলেন খালেদা জিয়া  » «   উচ্চ আদালতের সেই রায়  » «   গণভবনে প্রধানমন্ত্রী‘আল্লাহ যাকে ইচ্ছে ক্ষমতা দেন’  » «   পবিত্র হজ পালনমক্কায় বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু  » «   আমার গার্লফ্রেন্ডের সংখ্যা ১০টারও কম-রণবীর  » «   মেসির বাংলাদেশ সফর, যা বলল ইউনিসেফ  » «   বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণ! অতঃপর…  » «  

৬ বছর পর ধরা পড়লেন স্ত্রীর কাছে!



নিউজ ডেস্ক::বিয়ে করেছেন প্রায় ৬ বছর আগে। বেশ ভালোই যাচ্ছিল দু’জনের সংসার জীবন। কিন্তু বিয়ের এত বছর পরে এসে স্বামীর আসল ধর্মীয় পরিচয় জানতে পারেন স্ত্রী। ব্যস, তখন থেকেই শুরু হয় সমস্যা।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের মেরঠের এক নারী দাবি করেন, ৬ বছর সংসার করার পর তিনি বুঝতে পেরেছেন, তার স্বামী একজন মুসলিম। এখন তাকেও ধর্মান্তরের চাপ দিচ্ছেন তার স্বামী। অথচ হিন্দু পরিচয় দিয়ে তাকে বিয়ে করেছিলেন তিনি।

জানা গেছে, গত শনিবার বজরং দলের লোকজনকে নিয়ে মেরঠের পুলিশ সুপারের কাছে হাজির হন ওই নারী।

ওই নারী অভিযোগ, ‘ইসলামের নানা রীতি আমাকে দিয়ে জোর করে করানো হত। কিন্তু আমি ধর্ম বদল করতে চাই না।’

তাই সু-বিচারের আর্জি জানিয়েছেন ওই নারী। ইতোমধ্যে এ ঘটনার তদন্তে নেমে পড়েছে পুলিশ।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যমকে ওই নারী বলেছেন, ‘আমার স্বামী নিজেকে হিন্দু পরিচয় দিয়ে বিবাহ করেছিলেন তাকে। শ্বশুর বাড়ি যাওয়ার পর বুঝতে পারি, আমার স্বামী মুসলিম। তিনি আমাকে জোর করে ধর্মান্তরের চেষ্টা করেছেন। এমনকি ইসলামি রীতি মেনে পুনর্বিবাহের চাপও দিয়েছে স্বামীর পরিবার।’

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: