বৃহস্পতিবার, ৬ অগাস্ট ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২২ শ্রাবণ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Sex Cams
সর্বশেষ সংবাদ
অক্টোবর-নভেম্বরেই অক্সফোর্ডের ভ্যাকিসন  » «   রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজান গ্রেফতার  » «   নকল মাস্ককাণ্ডে ৩ দিনের রিমান্ডে অপরাজিতার শারমিন  » «   পানিতে দাঁড়িয়েই কয়রাবাসীর ঈদের নামাজ  » «   ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তের রেকর্ড, মৃত্যু ৫০০ ছাড়ালো  » «   ফিনল্যান্ডে ভিন্ন আবহে ঈদ উদযাপন  » «   উপকূলে আমফানের আঘাত  » «   করোনা চিকিৎসায় ইতিবাচক ফলাফল দেখতে পেয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা  » «   করোনার টিকা আবিষ্কারের দাবি ইতালির বিজ্ঞানীদের  » «   জেলে করোনা আতঙ্কে প্রিন্সেস বাসমাহ  » «   ঘুষের প্রশ্ন কিভাবে আসে, বললেন ওষুধ প্রশাসনের ডিজি  » «   কিশোরগঞ্জে এবার করোনায় সুস্থ হলেন চিকিৎসক  » «   স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় অজ্ঞতাবশত ভুল বলিয়াছে: ডা. জাফরুল্লাহ  » «   বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে  » «   ফ্রান্সে টানা চতুর্থদিন মৃত্যুর রেকর্ড, ৪ হাজার ছাড়াল প্রাণহানি  » «  

২১ দেশের ৪৩৯ বিদেশি খেলোয়াড় থাকছেন ড্রাফটে



স্পোর্টস ডেস্ক:: প্লেয়ার্স ড্রাফটের বাকি ২৪ ঘণ্টারও কম সময়। কিন্তু পাওয়া যাচ্ছিলো না ড্রাফটে নাম উঠতে যাওয়া খেলোয়াড়দের তালিকা। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল থেকে শুরু করে বিসিবির কর্মকর্তাদের কাছে পর্যন্ত খোঁজ নিয়েও মিলছিলো না কোনো সদুত্তর। যার ফলে বেড়েই যাচ্ছিলো অপেক্ষা।

অবশেষে রাত ৮টার পরপর, বঙ্গবন্ধু বিপিএল-২০১৯’র লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠান শেষে বিসিবির পক্ষ থেকে দেয়া হয় আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি। যেখানে জানানো হয় প্লেয়ার্স ড্রাফটে থাকছেন কারা, কতইবা হচ্ছে তাদের ভিত্তিমূল্য।

বিসিবি আনুষ্ঠানিক বিজ্ঞপ্তি দেয়ার আগে যে অনানুষ্ঠানিক তালিকাটি ঘুরে বেড়াচ্ছিলো নেট দুনিয়ায়, সেটির সঙ্গে অমিল ব্যাপক। ড্রাফটের জন্য নিবন্ধন করানো হয়েছে ১৮১ জন দেশি খেলোয়াড়ের নাম। অন্যদিকে বিদেশি কোটায় ড্রাফটে উঠবে ২১ দেশের ৪৩৯ জন খেলোয়াড়ের নাম।

দেশি খেলোয়াড়দের ৬টি গ্রেড করা হলেও, বিদেশিদের জন্য করা হয়েছে পাঁচটি গ্রেড। তবে সর্বোচ্চ ‘এ+’ গ্রেডে রাখা হয়েছে মাত্র ৪ জন দেশি খেলোয়াড়, অন্যদিকে বিদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে ‘এ+’ গ্রেডে রয়েছেন মোট ১১ জন খেলোয়াড়।

দেশিদের মধ্যে এ+ গ্রেডে থাকছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিদেশি ১১ জন হলেন ড্যান ভিয়াস (দক্ষিণ আফ্রিকা), শহীদ আফ্রিদি (পাকিস্তান), রিলে রুশো (দক্ষিণ আফ্রিকা), মোহাম্মদ নবী (আফগানিস্তান), শোয়েব মালিক (পাকিস্তান), হাসান আলি (পাকিস্তান), ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), থিসারা পেরেরা (শ্রীলঙ্কা), ড্যারেন ব্রাভো (ওয়েস্ট ইন্ডিজ), ডোয়াইন স্মিথ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) ও মুজিব উর রহমান (আফগানিস্তান)।

এছাড়া দেশি-বিদেশিদের বৈষম্য রয়েছে পারিশ্রমিকের ক্ষেত্রেও। দেশি খেলোয়াড়দের এ+ গ্রেডে থাকা চারজন পাবেন ৫০ লাখ টাকা করে। অন্যদিকে বিদেশিদের এ+ গ্রেডের ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ১ লাখ ডলার। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৮৪ লাখ টাকার সমান।

এমনকি যে ১৫ জন বিদেশি খেলোয়াড় রয়েছেন এ গ্রেডে, তারাও পাবেন দেশি খেলোয়াড়দের এ+ গ্রেডের চেয়ে বেশি পারিশ্রমিক। তাদের ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ৭০ হাজার ডলার বা প্রায় ৫৯ লাখ টাকা। শুধু তাই নয় বিদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বনিম্ন ‘ডি’ গ্রেডে রাখা হয়েছে ২৭২ জন ক্রিকেটারকে। তাদের ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ২০ হাজার ডলার বা ১৬ লাখ টাকা। যা কি না দেশি খেলোয়াড়দের ‘বি’ গ্রেডের প্রায় সমান।

বিদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে নিবন্ধিত খেলোয়াড়দের ভাগ করা হয়েছে এ+, এ, বি, সি ও ডি গ্রেডে। সবচেয়ে বেশি ডি গ্রেডে রাখা হয়েছে ২৭২ জনকে। এছাড়া এ+ গ্রেডে ১১, এ গ্রেডে ১৫, বি গ্রেডে ৬৬ ও সি গ্রেডে ৭৫ জন খেলোয়াড় রাখা হয়েছে।

সবচেয়ে বেশি ৯৫ জন খেলোয়াড় রয়েছে ইংল্যান্ড থেকে। এছাড়া পাকিস্তান থেকে ৮৯, ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে ৬৬, শ্রীলঙ্কা থেকে ৪৪, আফগানিস্তান থেকে ৩৯, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে ৩৫, কানাডা থেকে ১৪, জিম্বাবুয়ে থেকে ৯, আয়ারল্যান্ড থেকে ৭, আরব আমিরাত থেকে ৫, নেদারল্যান্ডসের ৫ ও ওমান থেকে ৪, হংকং, অস্ট্রেলিয়া ও ভারত থেকে ৩, নেপাল থেকে ২ জন রাখা হয়েছে। এছাড়া ১ জন খেলোয়াড় থাকছেন জার্মানি, নামিবিয়া ও নিউজিল্যান্ড থেকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: