সোমবার, ২৪ জুন ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
প্রথমবার সিলেট-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রুটে উড়বে ইউএস-বাংলা  » «   ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়ায়-জাপান-অস্ট্রেলিয়া  » «   ভোটকেন্দ্রেই ঘুমিয়ে পড়লেন কর্মকর্তা  » «   ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় পিটিয়ে মুসলিম যুবককে হত্যা  » «   নয়াপল্টনে একের পর এক ককটেল বিস্ফোরণ  » «   অফিসে বসে বসে শুধু কি চা খাইলে হবে? দেশপ্রেম থাকতে হবে: হাইকোর্ট  » «   বিকেলের মধ্যে উদ্ধার কাজ শেষ হবে: রেলসচিব  » «   বাংলাদেশের নামে সড়কের নামকরন যুক্তরাষ্ট্রে  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বাড়লেও দুর্নীতি কমছে না : টিআইবি  » «   দেশসেরা প্রধান শিক্ষক হবিগঞ্জের শাহনাজ কবীর  » «   বাঘের খাবারও চুরি হয় ঢাকা চিড়িয়াখানায়, ফেসবুকে ভাইরাল  » «   দুই মাস ওমরাহ ভিসা স্থগিত করল সৌদি  » «   বীমার আওতায় যেসব সুবিধা পাচ্ছে সরকারি চাকরিজীবীরা  » «   কারাগারে সুনামগঞ্জের আ. লীগ নেতা শামীম আহমদ  » «   মুক্তি পেয়ে নতুন যে বাড়িতে থাকবেন খালেদা  » «  

১৯ বছর ধরে গাড়ি চলে না যে শহরে



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: সাধারণত বাইরে বের হলেই গাড়ির শব্দ, কালো ধোঁয়ায় শ্বাস নেয়াই যেন কঠিন। অথচ রাস্তায় যদি দেখতেন কোনো গাড়ির শব্দ আর নেই কালো ধোঁয়া? কিন্তু সত্যিই আছে এমন শহর যেখানের রাস্তায় কোনো গাড়ি নেই অর্থাৎ সেখানে রাস্তায় গাড়ি চালানো একেবারেই নিষিদ্ধ।

স্পেনের একটি ছোট্ট শহর পন্টেভেদ্রা। প্রায় ১৯ বছর ধরে এই শহরের রাস্তায় গাড়ি চলা নিষিদ্ধ। খুব বেশি প্রয়োজনেই শুধু মাত্র গাড়ি চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়।আর সাধারণত শহরের বাসিন্দারা পায়ে হেঁটে বা সাইকেলে করেই গন্তব্যে যান। শহরটা ছোট হওয়ায় সাইকেলে যাওয়া আসা তেমন কোনো সমস্যার নয়।

১৯৯৯ সাল থেকে এই শহরে গাড়ি নিষিদ্ধ। যা করেছিলেন পন্টেভেদ্রার মেয়র মিগুয়াল অ্যাঙ্গসো ফারনানডেজ লরেস। ।এই নিয়ে চার বার মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। ১৯৯৯ সালে প্রথমবার মেয়র হওয়ার পরই গাড়ি নিষিদ্ধ করেন যা এখনো চলছে।

যানজট আর দূষণমুক্ত করে পন্টেভেদ্রাকে বাসযোগ্য করে তোলার পরিকল্পনা থেকেই তিনি এই সিধান্ত নেন। তবে এই শহরের জনগণও এতে সাড়া দিয়ে এত বছর ধরে নিয়ম মেনে চলছে।

আর সেই কারণেই হয় তো ১৯৯৯ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত তাকেই মেয়র নির্বাচিত করা হয়েছে। ১৯৯৬ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত এই শহরে সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল ৩০ জনের। কিন্তু এর পরের ১০ বছর অর্থাৎ ২০০৬ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যুর সংখ্যা মাত্র ১০।এমনকি ২০০৯ সালের পর থেকে একটি মৃত্যুও পথ দুর্ঘটনার কারণে হয়নি বলে সম্প্রতি জানিয়েছেন শহরের মেয়র নিজেই।

পায়ে হেঁটে আর সাইকেলে যাতায়াত করার জন্য দূষণের মাত্রাও কমেছে অনেক। যার কারণে পন্টেভেদ্রার বাতাসে কার্বন ডাই-অক্সাইডের পরিমাণও হ্রাস পেয়েছে। গাড়ির সংখ্যা কমে যাওয়ায় এখানে মানুষের বসতি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।আর এ ধরনের উদ্যোগের জন্য গাড়ি মুক্ত পন্টেভেদ্রা ২০১৪ সালে জাতিসংঘের হাবিট্যাট পুরস্কারও পেয়েছে।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: