সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সুনামগঞ্জ-৪ আসনে বিএনপির প্রার্থী হব –জয়নুল জাকেরীন  » «   ৫৫ বছরের শিক্ষিকার পিছু ধাওয়া করায় ৬২ বছরের বৃদ্ধের কারাদণ্ড!  » «   রোহিঙ্গা ইস্যু ‘জাতির জন্য বড় চ্যা‌লেঞ্জ’  » «   স্পর্শিয়া-রাফসানের সংসারে বিচ্ছেদ  » «   বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির গণশুনানি সোমবার  » «   জেহাদুলের মুখে মা বাবা ভাই হারানোর লোমহর্ষক বর্ণনা  » «   আবারও মের্কেলের জয়  » «   রোহিঙ্গা নিধনযজ্ঞের ১ মাস  » «   শ্রীমঙ্গলে রোহিঙ্গা শিশু উদ্ধার  » «   যুক্তরাষ্ট্র থেকে জরুরি ফাইলে স্বাক্ষর প্রধানমন্ত্রীর  » «   প্রধান শিক্ষকের বদলি ঠেকাতে কানাইঘাটে শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন  » «   মেডিকেল ছাত্রীর সতীত্ব বিক্রির বিজ্ঞাপন!  » «   ঢামেক হাসপাতাল‘মর্গের ভিতরে যেতে পারি না’  » «   বোরকা পরেও নিজেকে লুকাতে পারলেন না এই অভিনেত্রী  » «   ‘যুক্তরাষ্ট্র শয়তানের হেডকোয়ার্টার’  » «  

১৬ দুর্নীতির প্রমাণ বেরোবি’র ভিসির বিরুদ্ধে



নিউজ ডেস্ক::বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির ১৬টি অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন(ইউজিসি)। বুধবার ইউজিসি থেকে এ তথ্য জানানো হয়। ২০১৬ সালের ২৫ ডিসেম্বের থেকে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর একেএম নূর-উন-নবীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতি তদন্তের কাজ শুরু করে তিন বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কয়েকজন নেতা এবং শিক্ষক সমিতির কয়েকজন কর্মকর্তার বক্তব্য নিয়েছে তদন্ত কমিটি। তার বিরুদ্ধে গড়ে প্রতি কর্মদিবসে আপ্যায়ন বিল ৭৩০০ টাকা। ভর্তি পরীক্ষার সম্মানি হিসেবে সাড়ে ১৬ লাখ টাকা নেওয়ার অভিযোগ আছে।

উল্লেখ্য, গত ৬ মার্চ রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ ইউজিসির চেয়ারম্যান বরাবর দায়ের করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। অভিযাগের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ আগস্ট ইউজিসির সদস্য প্রফেসর আখতার হোসেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. মিজানুর রহমান ও ইউজিসির অতিরিক্ত পরিচালক ফখরুল ইসলামকে নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ইউজিসি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: