মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
রাতে দেশ ছাড়ছেন মাহমুদউল্লাহ-মুস্তাফিজ  » «   পারিবারিক অশান্তির মূলে পরকীয়া  » «   ‘এই সুমি সেই সুমি’  » «   সুপ্রিম কোর্টের দারস্থ প্রিয়া প্রকাশ  » «   খালেদার শহীদ মিনারে শ্রদ্ধার বিষয়ে যা বললেন আ’লীগ নেতারা  » «   পাবনায় সরকারি এডওয়ার্ড কলেজে বই পড়া ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত  » «   পাবনা জেলা বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির কমিটি গঠন শাহাদত সভাপতি রাসেল সম্পাদক  » «   কানাডায় বাংলাদেশি তরুণীর কৃতিত্ব  » «   মাথা না ধুলে ফরজ গোসল হবে?  » «   হোটেলে রুম ফাঁকা নেই, ফিরিয়ে দেয়া হলো মোদিকে  » «   ‘বর্তমান অবস্থায় খালেদা জিয়া নির্বাচন করতে পারবেন না’  » «   হবিগঞ্জে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের গুলি,আহত ৩০  » «   পোশাক নিয়ে আলোচনায় সোহানা সাবা  » «   ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত শহীদ মিনার  » «   চুনারুঘাটে অগ্নিকান্ডে ২টি দোকান পুড়ে ছাই  » «  

১৬ দুর্নীতির প্রমাণ বেরোবি’র ভিসির বিরুদ্ধে



নিউজ ডেস্ক::বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে অনিয়ম ও দুর্নীতির ১৬টি অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন(ইউজিসি)। বুধবার ইউজিসি থেকে এ তথ্য জানানো হয়। ২০১৬ সালের ২৫ ডিসেম্বের থেকে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর একেএম নূর-উন-নবীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতি তদন্তের কাজ শুরু করে তিন বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ কয়েকজন নেতা এবং শিক্ষক সমিতির কয়েকজন কর্মকর্তার বক্তব্য নিয়েছে তদন্ত কমিটি। তার বিরুদ্ধে গড়ে প্রতি কর্মদিবসে আপ্যায়ন বিল ৭৩০০ টাকা। ভর্তি পরীক্ষার সম্মানি হিসেবে সাড়ে ১৬ লাখ টাকা নেওয়ার অভিযোগ আছে।

উল্লেখ্য, গত ৬ মার্চ রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ ইউজিসির চেয়ারম্যান বরাবর দায়ের করে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। অভিযাগের পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ আগস্ট ইউজিসির সদস্য প্রফেসর আখতার হোসেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ড. মিজানুর রহমান ও ইউজিসির অতিরিক্ত পরিচালক ফখরুল ইসলামকে নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ইউজিসি।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: