শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল সংসদে ফেরত পাঠানোর আহ্বান  » «   কোনো বইকে নিষিদ্ধ করা ঠিক নয় : অর্থমন্ত্রী  » «   সিলেটে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে লাল কার্ড প্রদর্শন ও মানববন্ধন  » «   ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক হবে প্রধানমন্ত্রীর  » «   কাশ্মীর বিদ্রোহী নেতার নামে পাকিস্তানের ডাকটিকিটি প্রকাশ  » «   সংসদ নির্বাচনে হুমকি ‘সাইবার ক্রাইম’, গুজব ঠেকাতে সজাগ পুলিশ  » «   তাঞ্জানিয়ায় ফেরি ডুবি, নিহত বেড়ে ১৩৬  » «   আইনগত অনুমোদন পেলেই সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার: সিইসি  » «   সরকারি চাকরিজীবীদের কার জন্য কত টাকা গৃহঋণ  » «   গণেশের ছবি দিয়ে বিজ্ঞাপন: হিন্দুদের কাছে ট্রাম্পের দলের দুঃখ প্রকাশ  » «   প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলো কোটা বাতিলের সুপারিশ  » «   রেলের আধুনিকায়নে দুই হাজার কোটি টাকার প্রকল্প  » «   কেন মুনকে বিশেষ সেই ‘পবিত্র পর্বতে’ নিয়ে গেলেন কিম?  » «   সুখোই কিনলে ভারতকেও নিষেধাজ্ঞায় পড়তে হবে!  » «   প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্কের পথে লন্ডন পৌঁছেছেন  » «  

১৫ বছর পর ফুটে উঠল ‘মৃত্যুর ফুল’



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ফুলের নাম ‘মৃত্যুকুসুম’। কোনো রহস্য উপন্যাস থেকে উঠে আসা কল্পনা নয়, সত্যিই এই ফুল রয়েছে এই পৃথিবীতেই। যার ডাক নাম ‘কর্পস ফ্লাওয়ার’। সম্প্রতি দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার হান্টিংটন লাইব্রেরির বাগানে ফুটেছে এই ফুল। যা দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন হাজার হাজার কৌতুহলী মানুষ।

মার্কিন গণমাধ্যম জানিয়েছে, এই ফুলের বৈজ্ঞানিক নাম ‘অ্যামরফোফ্যালাস টাইটানাম’। কিন্তু এক বিশেষ কারণে এই ফুলকে ‘স্টিংক’ বলে ডাকা হয়। কারণটি হলো, ফোটার পর এই ফুল থেকে যে গন্ধ ছড়ায়, তা পচা মাংস বা মৃতদেহের গন্ধ। হান্টিংটন লাইব্রেরির মুখপাত্র লিজা ব্ল্যাকবার্ন জানিয়েছেন, এই ফুল ফুটতে সময় নেয় ১৫ বছর। কিন্তু এর ফুটে ওঠার প্রকৃত সময় মাত্র ২৪ ঘণ্টা।

এক সময়ে এই ফুল ফুটত জাভা ও সুমাত্রার কিছু কিছু অঞ্চলে। পরে উদ্ভিদবিদ্যা চর্চাকারীরা তা বিভিন্ন দেশে নিয়ে যান। বলাই বাহুল্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ফুল নিয়ে গেছেন গবেষকরাই। এর আগে ২০১৪ সালের ২৩ আগস্ট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সান ম্যারিনোয় সর্বশেষ কর্পস ফ্লাওয়ারটি ফুটেছিল। হান্টিংটন লাইব্রেরিতে ‘মৃত্যুকুসুম’ দেখতে আসা উৎসাহীদের মতে, এই ফুল দেখা সারা জীবন মনে রাখার মতো এক ঘটনা।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: