মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ‘স্পিড গান’  » «   কমলাপুর রেলওভার ব্রিজের ত্রুটির চিত্র তুলে ধরলেন ব্যারিস্টার সুমন  » «   জিন্দাবাজারে মিললো ২টি গোখরাসহ ৬ বিষধর সাপ  » «   কাশ্মীর ইস্যুতে আলোচনায় বসছেন ট্রাম্প- মোদী!  » «   মাত্র ১০০ মিটার দূরেই শত্রু  » «   অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে থাকবে সরকার: কাদের  » «   থানায় ‘গণধর্ষণের’ শিকার সেই নারীর জামিন নামঞ্জুর  » «   মিন্নির স্বীকারোক্তির আগে নাকি পরে এসপির ব্রিফিং : হাইকোর্ট  » «   প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবারে মন্ত্রিসভার সায়  » «   নবম ওয়েজবোর্ডের গেজেট প্রকাশ নিয়ে আপিল বিভাগের সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার  » «   পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে প্রবাসীর ওপর হামলা: দুই ছাত্রলীগ কর্মী গ্রেপ্তার  » «   সিলেটসহ রেলের পূর্বাঞ্চলের নিরাপত্তা নিশ্চিতে হাইকোর্টের রুল  » «   বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নয়, আ.লীগ নেতারা জড়িত : ফখরুল  » «   রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন: ‘শঙ্কা’ নিয়েই প্রস্তুত বাংলাদেশ  » «   সুনামগঞ্জে বিষপানে যুবকের আত্মহত্যা  » «  

১০২ ডিগ্রি জ্বর নিয়ে খেলেছেন মাশরাফি



full_1077820343_1462021838খেলাধুলা ডেস্ক: জয়টা যে খুব দরকার! তাইতো গায়ে ১০২ ডিগ্রি জ্বর নিয়েও মাঠে নামলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। আরো আছে বৈশাখের খরতাপ। প্রথম স্পেলে করলেন টানা ৮ ওভার। এরপর শেষ দিকে বাকি ২ ওভারও বোলিং করে পূর্ণ করলেন ১০ ওভারই।

জ্বর নিয়েও মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের অধিনায়ক নিয়েছেন ৪ উইকেট।

প্রথম স্পেলের টানা ওই ৮ ওভার করেছেন অবশ্য ছোট রান আপে। কয়েক পা দৌড়ে করেছেন ডেলিভারি। বল হাতে নিয়েছিলেন চতুর্থ ওভারে। টানা বোলিং করেছেন ১৮ ওভার পর্যন্ত।

দশম ওভারে ৫৭ রান তুলে ফেলা প্রাইম ব্যাংকের উদ্বোধনী জুটিই শুধু ভাঙেননি, ১১ বলের মধ্যে ৩ উইকেট নিয়ে মাশরাফি ম্যাচে ফেরান কলাবাগানকে।

৮ ওভারের টানা স্পেলে ৪৫ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট।

শেষ দিকে দ্বিতীয় স্পেলে ফিরেও শুরু করেছিলেন খাটো রান আপেই। তবে ২ বল পরই ফিরে যান পুরো রান আপে। সপ্তম উইকেটে তাইবুর পারভেজ ও রায়হানউদ্দিনের জুটি তখন জমে উঠেছে। মাশরাফি বোলিংয়ে ফিরে দ্বিতীয় বলেই রায়হানউদ্দিনকে (২৬) ফিরিয়ে ভাঙেন ৬৬ রানের জুটি।

সব মিয়ে ১০ ওভারে ৫৬ রান দিয়ে ৪ উইকেট। লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে সবশেষ ৪ উইকেট পেয়েছিলেন গত বছরের ২ জানুয়ারি এই প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে বিকেএসপিতে মোহামেডানের হয়ে। সেই ম্যাচে পরে রানও করেছিলেন ৬২।

খাটো রান আপে বোলিং করলেও প্রচণ্ড গরমে জ্বর নিয়ে ৮ ওভারের স্পেল, বিস্ময়কর বললেও কম বলা হয়। ম্যাচ শেষে কলাবাগান কোচ জালাল আহমেদ চৌধুরি জানালেন আরেকটি অবাক করা তথ্য। দুই পায়ে সাতটি অস্ত্রোপচারের ধকল বয়ে চলা মাশরাফিকে সবসময়ই মাঠে নামতে হয় পায়ে টেপ পেঁচিয়ে। এই ম্যাচে সেটিও করা হয়নি। তবু মাঠে নেমে বোলিং করেছেন পুরো ওভার।

ইনিংস বিরতিতে মাশরাফি জানান, ‘শরীর ভীষণ দুর্বল ছিল। এজন্য খাটো রান আপে বোলিং করেছি’। ৮ ওভারের স্পেল করেছি, কারণ বিরতি দিয়ে বোলিং করলে হয়ত শরীর সাড়া দিত না। বোলিং শুরু করার পর একটা মোমেন্টাম পেয়ে গিয়েছিলাম, চেয়েছি টানা বোলিং করেই যতটা সম্ভব শেষ করতে।

জ্বরকে বশে রাখতে ট্যাবলেট খেয়ে নেমেছিলেন মাঠে। শরীরের এই অবস্থায় এমন গরমের মধ্যে খেলা কতটা জরুরি ছিল, এই প্রশ্ন তুলতেই মাশরাফির ক্লান্ত মুখে ফুটে উঠল হাসি।

‘কী করব বলুন, দলের এই অবস্থা’! দুটো ম্যাচ হেরেছি, একটা জয় খুব দরকার। বোলিংটা এমনিতেই ভালো হচ্ছে না দলের, আমি না থাকলে আরও দুর্বল হয়ে যায়…।

কোচ জালাল আহমেদ চৌধুরী ম্যাচ শেষে জানালেন, অনুরোধ উপেক্ষা করেই মাঠে নেমেছিলেন মাশরাফি।

‘মানবিক দিক বিবেচনা করে আমি ওকে বলেছিলাম যে খেলার দরকার নেই’। কিন্তু সে তো মানুষ নয়, অন্য কিছু। দলের কথা ভেবে তারপরও নেমে গেছে খেলতে।

অধিনায়কের বীরোচিত ভূমিকার পরও অবশ্য শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি ৪৭ রানে হেরে যায় কলাবাগান। সেজন্য আক্ষেপ শোনা গেল কোচের কণ্ঠে।

‘অধিনায়ক যখন সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার এমন উদাহরণ গড়েন, বাকিদেরও উচিত নিজেদের ছাড়িয়ে যাওয়া। দুর্ভাগ্যজনক ভাবে আমাদের ছেলেরা সেটি পারল না’।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: