সোমবার, ১৫ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদ
টিকটক ভিডিও বানাতে গিয়ে নদীতে ঝাঁপ, ৪৮ ঘণ্টা পর লাশ উদ্ধার  » «   ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের দাবিতে সিলেট পিজিএস’র মানববন্ধন  » «   সিলেটে হোমিও শিক্ষায় বেড়েছে আগ্রহ,সহযোগিতায় সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা  » «   ভারী বৃষ্টিপাতে সিলেটের পাহাড়ি এলাকায় ধসের পূর্বাভাস  » «   জীবন দিয়ে হলেও এরশাদের মরদেহ রংপুরে আটকে দেয়ার ঘোষণা  » «   শেষ মুহূর্তে থেমে গেল ভারতের চন্দ্রযান ২-এর অভিযান  » «   এবার সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুললেন মিন্নি  » «   হজ নিয়ে সৌদি-কাতার পাল্টাপাল্টি অভিযোগ  » «   এরশাদের সন্তানরা কে কোথায়  » «   ওবামার সঙ্গে জেদের কারণেই ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের চুক্তি বাতিল!  » «   প্রধানমন্ত্রী সময় দিলে জুলাইয়েই ই-পাসপোর্ট উদ্বোধন  » «   লাইফ জ্যাকেট ছাড়াই পাঁচদিন বঙ্গোপসাগরে ভারতীয় জেলে! উদ্ধার চট্রগ্রামে  » «   বাংলাদেশের আর্থিক অন্তর্ভুক্তির প্রশংসায় রানী ম্যাক্সিমা  » «   অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে ম্যাজিস্ট্রেটের ওপর হামলা  » «   পদোন্নতি পেয়ে মন্ত্রী হচ্ছেন সিলেটের ইমরান আহমদ  » «  

হিজাবের জন্য চাকরি হারাচ্ছেন মালালা



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কানাডার কুইবেকে শিক্ষকতায় নিয়োজিত ছিলেন শান্তিতে নোবেলজয়ী পাকিস্তানি নাগরিক মালালা ইউসুজাই। কিন্তু এখন হিজাবের জন্য তার চাকরি হারাতে যাচ্ছেন তিনি। সম্প্রতি কুইবেকের শিক্ষাদপ্তর এক তথ্যে জানিয়েছে, কর্মজীবিরা ধর্মীয় চিহ্নযুক্ত কোনও কিছু পরে কর্মক্ষেত্রে আসতে পারবে না। তবে মালালা হিজাব ছাড়লে কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে।

অধিদফতরের পক্ষ থেকে অভিযোগে জানিয়েছেন, যে মালালা নিয়মিত হিজাব পরেন, যা ইসলাম ধর্মের অন্যতম চিহ্ন। সেভাবেই তিনি কানাডার প্রদেশ কুইবেকে পড়াতেন। ফলে নতুন আইন অনুযায়ী, কুইবেকে তার পড়ানো নিষিদ্ধ। কুইবেকের শিক্ষামন্ত্রী জঁ ফ্রাঁসোয়া রবার্জের যুক্তি, ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রাখার জন্যই এই আইনটি পাশ করানো হয়েছে। এসবের মাঝে আবার সেই শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গেই মালালার একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে।

যা বিতর্ক বাড়িয়েছে। জানা গেছে, আইনটি পাশ হওয়ার পর তিনি ফ্রান্সে সফরে মালালার সঙ্গে দেখা করেন। সেসময় মালালাও ফ্রান্সেই ছিলেন। এই আইনের আওতায় শিক্ষক ছাড়াও পুলিশ অফিসার ও আইনজীবীদের রাখা হয়েছে। ধর্মনিরপেক্ষতা বজায় রাখার জন্যই এই আইনটি পাশ করানো হয়েছে বলে জানান কুইবেকের শিক্ষামন্ত্রী জঁ ফ্রাঁসোয়া রবার্জো।

তিনি জানান, কুইবেকে মালালা পড়ালে আমরা সম্মানিত হব। কিন্তু যে কোনও উদার, সহিষ্ণু দেশে শিক্ষকরা কোনও ধর্মচিহ্ন সঙ্গে নিয়ে কাজ করবেন, এরকম কোনও উদাহরণ নেই। আইনটি পাশ হওয়ার পর ফ্রান্স সফরে মালালার সঙ্গে দেখা করেন কুইবেকের ওই শিক্ষামন্ত্রী। পরে তাদের একটি ছবি ভাইরাল হলে শিক্ষামন্ত্রীর সমালোচনা করা হয়।

সংবাদটি সম্পর্কে আপনার বস্তুনিষ্ট মতামত প্রকাশ করুন

টি মন্তব্য

সংবাদটি শেয়ার করুন

Developed by: